নিখোঁজ মাকে সন্তানদের কাছে ফিরিয়ে দিলো ফেসবুক

প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর ২০২১, ২০:২৫ | অনলাইন সংস্করণ

  পিরোজপুর প্রতিনিধি

ছবি: প্রতিনিধি

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নের বিন্না গ্রামে ফেসবুকের কল্যানে  নিখোঁজের আড়াই বছর পর মানসিক ভারসাম্যহীন মাকে ফিরে পেয়েছেন তার সন্তানরা। মানসিক ভারসাম্যহীন অজুফা বেগমের (৬৫) বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদি উপজেলার চর বেতাল গ্রামে৷ 

অজুফার পরিবার সূত্রে জানা যায়, অজুফা বেগম রাজধানীর মিরপুরে ছেলে দুলাল মিয়ার সঙ্গে থাকতেন। ২০১৯ সালের ২৮ আগস্ট তিনি বাসা থেকে বের হয়ে হারিয়ে যান। অনেক খোঁজাখুঁজির পর তাকে না পেয়ে ছেলে দুলাল মিয়া একই বছরের ৫ সেপ্টেম্বর রূপনগর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

এক মাস আগে পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার বিন্না বাজারে অজুফা বেগমকে ঘুরতে দেখে বলদিয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. বাবুল বাহাদুর বিন্না গ্রামের কোহিনূর বেগম নামের এক নারীর আশ্রয়ে তার থাকার ব্যবস্থা করেন। ২০ নভেম্বর ওই বাড়িতে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে এনজিও কর্মী আলী হায়দার মল্লিক আবদুল্লাহ অজুফা বেগমের ছবি তুলে তার পরিচিত আইনজীবী আরিফুর রহমানকে পাঠান। আরিফুর রহমান সেটাকে তার ফেসবুকে পোস্ট করেন। 

ফেসবুকের কল্যানে সেই পোস্ট পৌঁছে যায় অজুফা বেগমের স্বজনদের কাছে। আইনজীবী আরিফুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করেন তারা । বুধবার  পিরোজপুরের নেছারাবাদ উপজেলার বিন্না গ্রামে যান অজুফা বেগমের ছেলে দুলাল মিয়া ও মেয়ে নাজমা বেগম। সেখানে গিয়ে তারা ফিরে পান তাদের মাকে। 

এ ঘটনা স্থানীয় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে। ফেসবুকের উপকারীতা ফুটে উঠে স্থানীয় তরুন সমাজ আর জনপ্রতিনিধিদের  কথায়। 

অজুফার ছেলে দুলাল মিয়া বলেন, এ অনুভূতি প্রকাশ করার নয়৷ স্বপ্নেও ভাবি নি মাকে ফিরে পাবো৷ আল্লাহর কাছে শুকরিয়া। ধন্যবাদ তাদেরকে যারা আমার মা এর ছবি পোস্ট করেছিল স্বজনের খোজেঁ, তাদের কাছে চিরকৃতজ্ঞ আমাদের পরিবার। 

বলদিয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য বাবুল বাহাদুর বলেন, অজুফা বেগমকে বাজারে ভারসাম্যহীন অবস্থায় ঘোরাফেরা করতে দেখে বিন্না গ্রামের কোহিনূর বেগমের কাছে থাকার ব্যবস্থা করা হয়৷ ফেসবুকের মাধ্যমে তাকে তার পরিবারের কাছে দিতে পেরে আমরা স্থানীয়রা খুব আনন্দিত, যা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না।

বাংলাদেশ জার্নাল/এএম