ঢাকা, রোববার, ২৩ জানুয়ারি ২০২২, ৯ মাঘ ১৪২৮ আপডেট : ১১ মিনিট আগে

এক হাতের মঞ্জিল ও তার সংগ্রামী জীবনের উপাখ্যান

  আতাউর রহমান ফারুক, নরসিংদী প্রতিনিধি

প্রকাশ : ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০১:৩৬

এক হাতের মঞ্জিল ও তার সংগ্রামী জীবনের উপাখ্যান
ছবি: প্রতিনিধি
আতাউর রহমান ফারুক, নরসিংদী প্রতিনিধি

গার্মেন্টসে কাজে গিয়ে কমপ্রেসার মেশিনে এক হাত কাটা পড়ে মঞ্জিলের। কিন্তু পেট এসব বাহানা মানতে নারাজ। তার দাবী ও প্রয়োজনে এক হাতে অটো চালকের পেশা নিয়ে রাস্তায় নামতে হয় তাকে। সেটুকুও সয়নি তার বেশিদিন। ঋণ করা টাকায় অটো কিনে আবার ঋন শোধেই বেচতে হয় অটো।

তারপরই নামতে হলো শীতের চিতই পিঠে বানানো ও বিক্রির পেশায়। এই করেই চলছে এখন চলছে মঞ্জিলের সংসার, কোনো রকমে না চলার মতো করে।

মনোহরদী উপজেলার উত্তর মনতলা গ্রামের মৃত চাঁনমিয়ার পুত্র মঞ্জিল (৩৪)। আগে ঢাকায় গার্মেন্টসে কর্মী ছিলেন তিনি। কর্মকালীন এক দুর্ঘটনায় বাম হাত কাটা পড়ে তার। সেই থেকেই এক হাতে জীবন যুদ্ধে নামতে হলো তাকে। এক হাতে অটো চালিয়ে কখনো ঢাকা, কখনো নরসিংদী, টঙ্গীসহ দেশের নানা স্থানও রাস্তায় ঘুরতে হয়েছে তাকে। এনজিও'র ঋণ দিয়ে অটো কেনা তার। এ অবস্থায় একদিকে সংসার, অন্যদিকে ঋণের কিস্তি। ভারসাম্য বজায় রাখতে না পেরে শেষে অটো বেচে দায়মুক্তি নিতে হলো তাকে। নতুন করে ফের অটো কিনবে সে সামর্থ্য নেই তার। কিন্তু পেট সে কথা শুনবে কেন? তার দাবী ক্ষুন্নিবৃত্তি নিবারন। ফলে সে কথা মেনে হয়েছেন শীতের পিঠে বিক্রেতা।গ্রামের রাস্তার ধারে বসে চিতই পিঠে বানিয়ে বেচেন সকাল সন্ধ্যে।

তার আয় থেকেই চলে মা বৌসহ ৩ জনের সংসার। জায়গা-জমি বলতে আছে শুধু ভিটেটুকুই। নতুন অটো কিনে পথে নামবে সে সঙ্গতি নেই তার। ফলে চিতই পিঠা বিক্রির আয়েই সংসার চলে তার কোনরকমে একেবারে না চলার মতো করে। তবুও আশা শীতের চিতই বেচা টাকা জমিয়ে অটো কেনা হবে একদিন। তাহলে আরেকটু স্বচ্ছলতা,আরেকটু স্বাচ্ছন্দ্যের জীবন ফিরে পেতে আশা তার।

বাংলাদেশ জার্নাল/এএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত