ঢাকা, রোববার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ আপডেট : ১৭ মিনিট আগে

বিটিসিএল-ব্যাংকের দ্বিমুখী বক্তব্য, বিড়ম্বনায় গ্রাহক

  কিরণ শেখ ও আনিসুর রহমান

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৩:২১  
আপডেট :
 ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৩:৫৮

বিটিসিএল-ব্যাংকের দ্বিমুখী বক্তব্য, বিড়ম্বনায় গ্রাহক
কিরণ শেখ ও আনিসুর রহমান

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ কোম্পানি লিমিটেডের (বিটিসিএল) বিল গ্রাহকেরা আগে ব্যাংকে পরিশোধ করতে পারলেও এখন তা নিচ্ছে না ব্যাংকগুলো। তারা ডিজিটাল পদ্ধতিতে (বিকাশ) বিল পরিশোধ করতে বলছে।

আর বিটিসিএল বলছে, এই বিল ব্যাংকে এবং বিকাশেও পরিশোধ করা যাবে। কিন্তু নতুন সিস্টেম চালু হওয়ার কারণে বিল পরিশোধে গ্রাহকেরা কিছু সমস্যা সম্মুখীন হচ্ছেন। ফলে বিল পরিশোধ নিয়ে বিটিসিএল এবং ব্যাংকের দ্বিমুখী বক্তব্য বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন গ্রাহক।

বিটিসিএলের বিল পরিশোধ করতে ব্যাংক থেকে বলা হচ্ছে, বিটিসিএল এর সঙ্গে যোগাযোগ করুন। আমরা বিল নিতে পারছি না। আপনারা ডিজিটাল পদ্ধতি বিকাশের মাধ্যমে বিল পরিশোধ করুন। এটা ছাড়া এখন কোন উপায় নেই।

তবে বিটিসিএলের ওয়েবসাইটে দেখা গেছে, বিল পরিশোধ এখন আরও সহজ। গ্রাহকদের ভোগান্তি লাঘব করতে বিটিসিএল ১ জানুয়ারি থেকে অত্যাধুনিক বিজনেস অপারেশন সাপোর্ট সিস্টেম (BOSS) চালু করেছে।

বিটিসিএল এর টেলিফোন, জিপন এবং এডিএসএল এর বিল এখন বিকাশ, নগদ, রকেট এবং ডেবিট/ ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে পরিশোধ করা যায়। এজন্য কাগজে প্রিন্টেড বিল পাওয়ার প্রয়োজন নেই। বিল পরিশোধের ক্ষেত্রে ফোন নম্বরসহ নিম্নের ফরমেটে ইনভয়েস নম্বর ব্যবহার করতে হবে।

বিটিসিএলের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ কোম্পানি লিমিটেড একটা নতুন সিস্টেম চালু করছে। এই নতুন সিস্টেম চালু হওয়ার কারণে কিছু কিছু সমস্যা দেখা দিচ্ছে। আর ব্যাংক হচ্ছে বিটিসিএলের সফটওয়্যারের সাথে সংযোগ করা। যখন বিল পায় না কিংবা বিলের টাকা না মিললে তখন তারা বিল নেন না। আর নতুন এই সিস্টেম এখন ট্রায়েল অবস্থায় চলছে। কিন্তু সিস্টেমের কাজ পুরোপুরি এখনও সম্পূর্ণ হয়নি। একারণে ব্যাংক বিল নিতে পারছে না।

জানতে চাইলে নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ কোম্পানি লিমিটেডের এক কর্মকর্তা বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, বিকাশ, রকেট ও নগদের সাথে বিটিসিএলের চুক্তি আগে থেকেই আছে। আর ১৮টা ব্যাংকের সাথেও চুক্তি আছে। এরা অনলাইনে বিটিসিএলের বিলগুলো নেয়। আর গত ৩ জানুয়ারি থেকে বিটিসিএলের নতুন সিস্টেম চালু করেছে। এটা আন্তর্জাতিক মানের একটা সিস্টেম। এই কাজ এখনো চলছে। এখনও সম্পূর্ণ হয়নি। ফলে ব্যাংকগুলো কাজগুলো করতে পারছে না।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক বিটিসিএলের আরেক কর্মকর্তা বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, অগ্রণী ব্যাংক বিটিসিএলকে বলেছে, তারা ৯০ শতাংশ কাজ করতে পারছে। কিন্তু ১০ শতাংশ সমস্যা দেখা দিচ্ছে। এই সমস্যা সমাধানের জন্য বিটিসিএল চেষ্টা করছে। আর সিস্টেমটা আপডেট হলেই এই সমস্যার সমাধান হবে।

ব্যাংককে বিটিসিএলের বিল নেয়া কি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে- এমন প্রশ্নে এই কর্মকর্তা বলেন, ব্যাংক ও বিকাশে উভয়ই জায়গায় গ্রাহকরা বিল পরিশোধ করতে পারবেন। আর বিকাশেও কোথাও কোথাও সমস্যা হচ্ছে। আর যেটা সমস্যা সেটা মোটামোটি সমস্যা হচ্ছে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ যুগ্মসচিব (নিরীক্ষা) মো. জেহসান ইসলাম বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, এবিষয়ে কিছু বলার এখতিয়ার আমার নেই।

জানতে চাইলে বিটিসএলের সহকারী ম্যানেজার মো. ওয়াহিদুজ্জামান বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, আমি তো নড়াইল জেলার দায়িত্বে আছি। এবিষয়ে কেন্দ্রীয়ভাবে এখনো কোন নির্দেশনা আসে নাই।

একই বিষয়ে বিটিসএলের কনিষ্ঠ সহকারী ম্যানেজার পল্লাবী ঘোষ বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, এধরনের কোন নির্দেশনা এখনো দেয়া হয়নি।

এদিকে বিকাশের অ্যাপে দেখা গেছে, টেলিফোন বিল বিকাশ করুন অ্যাপ থেকে। অ্যাপে লেখা রয়েছে, দেশের যেখানেই থাকুন, ঘরে বসেই আপনার টেলিফোন বিল বিকাশ করতে পারবেন নিশ্চিন্তে। লাইনে দাঁড়ানোর ঝামেলা নেই আর। বিকাশ অ্যাপ থেকে টেলিফোন বিল দিলেই বিলের রিসিট সরাসরি আপনার মোবাইলে পেয়ে যাবেন। বিকাশ অ্যাপ থেকে এবং *247# ডায়াল করে বিল প্রদানের ক্ষেত্রে যেকোনো ইনভয়েস অ্যামাউন্টের ১% অথবা সর্বোচ্চ ৩০ টাকা চার্জ প্রযোজ্য হবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/কেএস/এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত