ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে

গাজীপুরে এক মাসে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত ৪ সহস্রাধিক

  গাজীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশ : ০৬ এপ্রিল ২০২২, ২১:৪২

গাজীপুরে এক মাসে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত ৪ সহস্রাধিক
ফাইল ছবি
গাজীপুর প্রতিনিধি

গত মার্চে গাজীপুরের পাঁচ উপজেলায় চার সহস্রাধিক লোক ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে। আর চলতি মাসের গত পাঁচদিনে আক্রান্ত হয়েছে আরও ২৩২ জন। জেলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

গত ২৪ ঘন্টায় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে গাজীপুরের দুটি সরকারি হাসপাতালে ৪৬ জন ভর্তি হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে শিশুও রয়েছে।

টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার হাসপাতালের পরিচালক জাহাঙ্গীর হোসেন মুকুল জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার হাসপাতালে ১৭ জন ডায়রিয়া রোগী ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৯ জন পুরুষ, ৩ জন নারী ও ৫ জন শিশু। গত মার্চ মাসে এ হাসপাতালে রোগটিতে আক্রান্ত হয়ে ২৭৯ জন চিকিৎসা নিয়েছেন। সপ্তাহ খানেক আগে এখানে ২০ বেডের ডায়রিয়া ওয়ার্ডও খোলা হয়েছে। প্রয়োজনে এ বেডের সংখ্যাা আরও বাড়ানো হবে।

এ রোগ মনিটরিংয়ের জন্য একটি কমিটি গঠন হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রচণ্ড গরম, পরিবেশ দূষণ, মশা-মাছির উপদ্রব বৃদ্ধি, পানি দূষণ থেকে এ রোগের বিস্তার ঘটছে। পরিবেশ দূষণ রোধ, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা রক্ষা, বাসি-পচা খাবার বর্জন, বিশুদ্ধ পানি পান এবং ওষুধ প্রয়োগ করে মশা-মাছি নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে এই রোগ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব।

অপরদিকে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক তপন কান্তি সরকার জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় এ হাসপাতালে ২৮ জন ডায়রিয়া রোগী ভর্তি হয়েছে। তাদের মধ্যে পরুষ ১১ জন, নারী ৯ জন এবং শিশু রয়েছে ৯ জন। গত মার্চেও এ রোগ নিয়ে ভর্তি হয়েছে। তবে সংখ্যায় খুব বেশি ছিল না। তবে এই মুহূর্তে মার্চে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগীর সঠিক পরিসংখ্যান নেই।

তিনি আরও বলেন, এ হাসপাতালে ডায়রিয়ার রোগীর জন্য আলাদা কোনো ওয়ার্ড খোলা হয়নি। মেডিসিন ওয়ার্ডে রেখেই ডায়রিয়ার চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। রোগীর সংখ্যা বাড়লে ডায়রিয়ার জন্য আলাদা ওয়ার্ড খোলা হবে। প্রচণ্ড গরম, পানি দূষণ ও খাবারে বিষক্রিয়ার কারণেই এ রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে।

গাজীপুর সিভিলে সার্জন ডা. মো. খায়রুজ্জামান জানান, গত মার্চে গাজীপুরের ৫টি উপজেলায় ৪ হাজার ৮৫ জন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে। এছাড়া ১ এপ্রিল ৩৮ জন, ২ এপ্রিল ৪৬ জন, ৩ এপ্রিল ৩২ জন, ৪ এপ্রিল ৬০ জন এবং ৫ এপ্রিল ৫৬ জন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে। তবে ডায়রিয়ায় জেলার কোন হাসপাতালে কতজন ভর্তি হয়েছিলেন তাৎক্ষণিকভাবে এ তথ্য জানাতে পারেননি তিনি। এজন্য তিনি অতিরিক্ত গরমকেই দায়ী করেছেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত