ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯ আপডেট : ৩৬ মিনিট আগে

আজ পরীক্ষামূলক করোনা টিকা নেবে ১৬ শিশু শিক্ষার্থী

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০২২, ০৮:৫৮  
আপডেট :
 ১১ আগস্ট ২০২২, ০৯:৩১

আজ পরীক্ষামূলক করোনা টিকা নেবে ১৬ শিশু শিক্ষার্থী
ছবি: সংগৃহীত
নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ৫ থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের টিকা কার্যক্রম আজ বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) থেকে শুরু হচ্ছে।

আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করবেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এ সময় ১৬ জন শিশুকে পরীক্ষামূলকভাবে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে শুধু সিটি করপোরেশন এলাকায় এ কার্যক্রম চালানো হবে। পরবর্তী সময়ে পর্যায়ক্রমে তা জেলা-উপজেলায় শুরু হবে।

টিকা নিচ্ছে যেসব শিক্ষার্থী

ঢাকা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, শুরুর দিনে পর্যবেক্ষণমূলক শিশুদের করোনা টিকা গ্রহণে ১৬ শিক্ষার্থীকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। তাদের প্রত্যেককেই আবুল বাশার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

তাদের মধ্যে প্রথম তালিকায় আছে বিদ্যালয়টির দ্বিতীয় শ্রেণির সৌম্য দ্বীপ দাস, চতুর্থ শ্রেণির মো. আবু সায়েম ফাহিম, পঞ্চম শ্রেণীর বিকাশ কুমার সরকার, তৃতীয় শ্রেণীর সাইমুন সিদ্দিক, তৃতীয় শ্রেণীর মো. আরাফাত শেখ, আকিব আহমেদ সায়ন, চতুর্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থী মাহমুদ হোসেন ও আল-আমিন।

এছাড়াও টিকা নেবে তৃতীয় শ্রেণীর শামীমা সিদ্দিকা তাসিন, রুপা আক্তার, হুমায়রা আফরিন তামান্না, নিধি নন্দিনী কুন্ডু, চতুর্থ শ্রেণীর তাসলিমা আক্তার, সানজিদা আক্তার, মোছা. নুসরাত জাহান আরিন এবং প্রথম শ্রেণীর শিক্ষার্থী হীরা আক্তার।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, ১১ আগস্ট পরীক্ষামূলকভাবে প্রয়োগের পরে ২৫ আগস্ট থেকে পুরোপুরিভাবে এই ভ্যাকসিন কার্যক্রম চলবে। প্রথম দিকে দেশের ১২টি সিটি করপোরেশন এলাকায় এ কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মো. খুরশীদ আলম জানান, ৫ থেকে ১১ বছরের শিশুদের এই ভ্যাকসিন কার্যক্রম সারাদেশের ১২টি সিটি করপোরেশন এলাকায় অনুষ্ঠিত হবে। ভ্যাকসিনের প্রথম রাউন্ড চলবে ২৫ আগস্ট থেকে ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মোট ১২ দিন। দ্বিতীয় রাউন্ড (দ্বিতীয় ডোজ কার্যক্রম) শুরু হবে প্রথম রাউন্ডের দুই মাস পর।

তিনি বলেন, ‘শিশুদের জন্য ফাইজারের বিশেষ ব্যবস্থায় তৈরি ভ্যাকসিন পর্যাপ্ত পরিমাণে আমাদের হাতে আছে। ভ্যাকসিনের সঙ্গে সংযুক্ত আমাদের কর্মীরাও সারাদেশে প্রস্তুত রয়েছেন। প্রথমদিকে আমরা সিটি করপোরেশন এলাকায় শুরু করার পরিকল্পনা নিয়েছি। তবে পর্যায়ক্রমে তা সারা দেশের জেলা-উপজেলা পর্যায়েও শুরু হবে।’

বাংলাদেশ জার্নাল/ওএফ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত