ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯ আপডেট : ৩ মিনিট আগে

জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা, আতংকিত সাতক্ষীরার উপকূলবাসী

  সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

প্রকাশ : ২০ আগস্ট ২০২২, ০১:২৭

জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা, আতংকিত সাতক্ষীরার উপকূলবাসী
ছবি: প্রতিনিধি
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

বঙ্গোপসাগরের সৃষ্ট নিন্মচাপের কারণে সাতক্ষীরা উপকূলের সকল নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের দেয়া ৩ নম্বর সতর্ক সংকেতে আতংকিত হয়ে পড়েছে উপকূলবাসী।

শুক্রবার সকাল থেকে পূর্ব দিক থেকে পশ্চিম দিকে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাচ্ছে। দিন ভর গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হলেও দুপুর থেকে ভারী বর্ষণ ও দমকা হাওয়া শুরু হয়।

সুন্দরবন সংলগ্ন কপোতাক্ষ, খোলপেটুয়া, চুনা, রায়মঙ্গলসহ উপকুলের সকল নদ-নদীর পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ৩ ফুট বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে চরম ঝুঁকিতে রয়েছে সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ড-১ ও ২ এর আওয়ায় বেশ কিছু ভেড়িবাঁধ।

আতংকিত হয়ে পড়েছে শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা, বুড়িগোয়ালিনী, পদ্মপুকুর, মুন্সিগঞ্জ, ভেটখালী এবং আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগর ইউনিয়নবাসী। বৃষ্টিপাতের কারণে আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগর ইউনিয়নের কপোতাক্ষ নদের কুড়িকাওনিয়া ও হরিষখালী ভেড়িবাঁধে পানি ছাপিয়ে লোকালয়ে প্রবেশ করছে। তড়িঘড়ি করে বাঁধ সংস্কারের কাজে হাত দিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। বৃষ্টিপাত বৃদ্ধি পেলে ভাঙ্গনের শংকায় রয়েছে উপকূলবাসী।

সাতক্ষীরা আবহাওয়া অফিসের উচ্চমান পর্যবেক্ষক মোঃ জুলফিক্কার আলী রিপন জানান, বঙ্গোপসাগরের নিন্মচাপের কারণে ৩নং সর্তক সংকেত চলছে। উপকূল এলাকায় ঝড়ো হাওয়া বইবে। এছাড়া নদ-নদীর পানি স্বাভাবিকের চেয়ে জোয়ারের পানি ২ থেকে ৪ ফুট জলোচ্ছাসের সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ড-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আবুল খায়ের জানান, নিন্মচাপের কারণে উপকূলের সকল নদ-নদীর পানি স্বাভাবিক জোযারের চেয়ে সামান্য একটু বৃদ্ধি পেয়েছে। দুঃচিন্তার কোন কারণ নেই।

পানি উন্নয়ন বোর্ড-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী শাহনেওয়াজ তালুকদার জানান, আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগরের কপোতাক্ষ নদের কুড়িকাওনিয়া বাঁধ পানির চাপে একটু ভেঙ্গে গেলে তাৎক্ষনিক মেরামতের কাজ শুরু হয়েছে। এছাড়া এই মূহুর্তে কোথাও কোন বাঁধ ভাঙ্গনের খবর আমাদের কাছে নেই।

বাংলাদেশ জার্নাল/জিকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত