ঢাকা, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ১ মিনিট আগে
শিরোনাম

টয়োটা গাড়িসহ ৭৩ লট পণ্যের নিলাম ১৬ অক্টোবর

  চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

প্রকাশ : ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৯:২১  
আপডেট :
 ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২১:১৪

টয়োটা গাড়িসহ ৭৩ লট পণ্যের নিলাম ১৬ অক্টোবর
চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস। ফাইল ফটো
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম কাস্টমসে জাপানি টয়োটা ব্র্যান্ডের গাড়িসহ ৭৩ ধরনের বিভিন্ন লট পণ্য নিলামে তোলা হচ্ছে। আগামী ১৬ অক্টোবর এ নিলাম অনুষ্ঠিত হবে।

মঙ্গলবার থেকে নিলাম প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে ক্যাটালগ ও দরপত্র বিক্রি শুরু হয়েছে। বিডাররা (নিলামে অংশগ্রহণকারী) নির্ধারিত মূল্য পরিশোধ করে ১২ অক্টোবর পর্যন্ত ক্যাটালগ ও দরপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন।

বিডাররা অফিস চলাকালীন এবং নিলাম পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স কেএম কর্পোরেশনের মাঝিরঘাটের অফিস, কাস্টমসের নিলাম শাখা অফিস এবং ঢাকার মতিঝিল অফিস থেকে ক্যাটালগ ও দরপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন।

দরপত্র আগামী ১২ ও ১৩ অক্টোবর সকাল ৯টা থেকে বেলা ২টার মধ্যে জমা দেয়া যাবে চট্টগ্রাম কাস্টমসের রাজস্ব কর্মকর্তার (প্রশাসন) কার্যালয়, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, শুল্ক আবগারি ও ভ্যাট কমিশনারেটের (ঢাকা দক্ষিণ) কার্যালয় এবং ঢাকার কাকরাইলে আইডিইবি ভবনে স্থাপিত দরপত্রের বাঙয়ে। এরপর ১৬ অক্টোবর বেলা আড়াইটায় বিডারদের উপস্থিতিতে দরপত্রের বাঙ খোলা হবে।

নিলাম সম্পন্ন হওয়ার পর সর্বোচ্চ দরদাতাদের অনুকূলে পণ্য বিক্রির অনুমোদন দেবেন নিলাম কমিটির সদস্যরা। নিলামে অংশগ্রহণ করতে প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে দরপত্রের সাথে হালনাগাদ করা ট্রেড লাইসেন্স, ভ্যাট রেজিস্ট্রেশন সনদ, টিআইএন সার্টিফিকেটের কপি দাখিল করতে হবে। ব্যক্তির ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি এবং হালনাগাদ টিআইএন সার্টিফিকেটের কপি দাখিল করতে হবে। এছাড়া ক্যাটালগে উল্লেখিত শর্ত পূরণ করে নিলামে অংশ নেয়া যাবে।

কাস্টমসের নিলাম শাখা সূত্রে জানা যায়, নিলামে জাপানের তৈরি টয়োটা ব্র্যান্ডের সাদা রঙের গাড়িটি গত বছর তিনবার নিলামে তুলেও বিক্রি করতে পারেনি কাস্টমস। ২০০৩ সালে তৈরি গাড়িটির দাম ধরা হয়েছে ১৭ লাখ ৮৬ হাজার ৭৭৬ টাকা ৯৪ পয়সা। এছাড়া অন্য পণ্যের মধ্যে রয়েছে আনপ্রিন্টেড পিভিসি শিট, ফিনিশিং এজেন্ট, হাইড্রোক্লোরিক এসিড, ডাই এসিড এইচপি, ব্যবহৃত ডেস্ক, বুক কেস, চেয়ার ও এয়ারকন্ডিশনার, সেফটি রেজার্স, প্লাস্টিক হ্যাঙ্গার, প্লাস্টিক বাকল, গ্র্যাফট, এলইডি টিভি, লুব অয়েল, আলকাতরা, কেরোসিন অয়েল, পাম অয়েল, থিনার, হাইক্লোরিক অয়েল ও স্লাজ অয়েল, ফসফরিক এসিড, নাইট্রিক এসিড, হাইড্রো এসিড, পটাশিয়াম হাইড্রোক্সাইড, পিনোল, গ্রিজ, ফরমালডিহাইড সলিউশন, সারফেস একটিভ প্রিপারেশন, লুব্রিকেটিং প্রিপারেশন, গার্মেন্টস ফেব্রিক্স, রাইচ মিলস মেশিনারি, সালফিউরিক এসিড, ডিজেল, নন মেটালিক হার্ডনার, ডেনিম ফেব্রিক্স, সিরামিকের ফুলদানি, ডুপ্লেক্স বোর্ড, প্লাস্টিকের জিপার, ইলাস্টিক বেল্ট, মেটাল ফ্রেম, ব্যাটারি লিড, ওয়াশিং কেমিক্যাল, মোবাইল কেসিং, ফেসওয়াশ, ব্যবহৃত উইনডার মেশিন, তেঁতুল বিচি, সিরামিক ওয়াল, গিয়ারবক্স, ফিড মেশিনারি, মিরর, লেডিস বেল্ট, ইন্ডাস্ট্রিয়াল সল্ট, ভল্টেজ স্ট্যাবিলাইজার, চশমা, সানগ্লাস, মোটর, স্টেইনলেস স্টিল মেটাল স্ক্র্যাপ, খাকি রঙের বড় কাগজের রোল, সিরামিক মগ ও পিভিসি ফর কোডিং টাওয়ার।

চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের নিলাম শাখার উপ-কমিশনার সন্তোষ সরেন বলেন, চট্টগ্রাম বন্দরে দীর্ঘ সময় পড়ে থাকা অখালাসকৃত পণ্যের নিয়মিত নিলাম অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সেই ধারাবাহিকতায় আগামী ১৬ অক্টোবর ৭৩ লট বিভিন্ন ধরনের পণ্য নিলামে তোলা হচ্ছে।

এর আগে ৭৯টি গাড়ি নিলামে তুললেও কোনো ডাক পড়েনি ৬৬টি বিলাসবহুল গাড়ির। চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে কার্নেট দি প্যাসেজ সুবিধায় আনা নামি-দামি গাড়িগুলো এভাবে বছরের পর বছর পড়ে আছে চট্টগ্রাম বন্দরে।

কাস্টমস হাউস সূত্রে পাওয়া তথ্যমতে, মার্সিডিজ বেঞ্জের ১৯টি, বিএমডব্লিউ ১৫টি, লেক্সাস ৭টি, মিতসুবিশি ২২টি, ল্যান্ড রোভার ৪টি, জাগুয়ার ২টি, ল্যান্ড ক্রুইজার ২টি, পাজেরো ২টি, টয়েটা ২টি, ডিয়াও ১টি, ভলকস ওয়াগন ১টি, ফোর্ড ১টি, হোন্ডা ব্যান্ডের ২টিসহ মোট ৭৯টি গাড়ির নিলাম ডাকা হয়েছে। এর মধ্যে মার্সিডিজ বেঞ্জের তিনটি গাড়ি কিনতে দরপত্র জমা দিলেও কোনো দরপত্র পড়েনি ১৬টি গাড়ির।

এছাড়া প্রায় চার কোটি টাকার বিএমডব্লিউ গাড়ির দাম দেড় কোটি টাকা ধরেও কোন ক্রেতা টানা যায়নি। ১৫টি বিএমডব্লিউ গাড়ির বিপরীতে দরপত্র পড়েছে ১১টিতে। মিতসুবিশি ব্র্যান্ডের ২২টি জিপ, মাইক্রো গাড়ির মধ্যে ক্রেতা এসেছে মাত্র দুটি গাড়ির জন্য। এছাড়া হোন্ডা ব্র্যান্ডের দুটি গাড়ির বিপরীতে দরপত্র পড়েছে একটিতে।

অন্যদিকে ল্যান্ড রোভার, জাগুয়ার, ল্যান্ড ক্রুইজার পাজেরো, টয়েটা, ডিয়াও, ভলকস ওয়াগন, ফোর্ড ব্র্যান্ডের ১৪টি গাড়ির জন্য কোনো ক্রেতাই পাওয়া যায়নি বলে জানায় কাস্টমস হাউস সূত্র।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত