ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯ আপডেট : ১১ মিনিট আগে
শিরোনাম

স্ত্রীকে গলাকেটে হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক

  কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

প্রকাশ : ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭:৫২  
আপডেট :
 ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৯:০৪

স্ত্রীকে গলাকেটে হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক
ছবি: প্রতিনিধি
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

কুড়িগ্রামে স্ত্রীকে গলাকেটে হত্যার অভিযোগে স্বামী মোখলেসুর রহমানকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত সাহেরা বেগম বেলগাছা ইউনিয়নের পলাশবাড়ী পশ্চিমপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুস ছাত্তারের মেয়ে। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী মোখলেছুর রহমান পলাতক ছিলেন। পরে দিনাজপুর শহর থেকে তাকে আটক করে পুলিশ।

নিহতের পরিবারের লোকজনের দাবি পারিবারিক কলহের জেরে শাহেরার স্বামী তাকে গলাকেটে হত্যা করে লাশ ঘরে রেখে তালাবদ্ধ করে পালিয়েছিলো।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মোখলেসুর রহমান ও সাহেরা বেগমের ২৫ বছরের সংসার। বিয়ের পর থেকে মোখলেসুর রহমান তার শ্বশুরবাড়ি কুড়িগ্রাম বেলগাছা ইউনিয়নের পলাশবাড়ী পশ্চিমপাড়া গ্রামে থাকতেন। তাদের দুই মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন। এক ছেলে রাজমিস্ত্রির কাজ করে।

বুধবার বাড়িতে স্বামী স্ত্রী দুজনেই শুধু ছিলেন। দুপুরে কথা কাটাকাটি করে এক পর্যায়ে মোখলেসুর ধারালো রামদা দিয়ে সাহেরার গলা কেটে ঘর তালা মেরে পালিয়ে যান। রাত ৭টার দিকে নিহতের ছেলে শামীম কাজ শেষে বাড়িতে ফিরে ঘর তালাবদ্ধ দেখতে পান। তালা ভেঙে তার মাকে বিছানায় গলাকাটা অবস্থায় দেখে চিৎকার দিলে লোকজন ছুটে আসে।

স্থানীয়রা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় মা ফাতেমা বেগম আসামি মুখলেসুর রহমানের বিরুদ্ধে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

নিহত শাহেরা বেগমের মা ফাতেমা বেগম বলেন, আমার জামাই মেয়েকে হত্যা করে পালিয়ে গেছে। আমি সারাদিন বাইরে ছিলাম। খবর শুনে এসে মেয়ের গলাকাটা মরদেহ দেখতে পাই। আমি আমার মেয়ে হত্যার বিচার চাই।

কুড়িগ্রাম সদর থানার ওসি খান মোহাম্মদ শাহরিয়ার জানান, পুলিশ পোস্টিং ঘটনার ৬ ঘণ্টার মধ্যে অভিযুক্ত স্বামীকে দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জের টিকুর সাল খুঁড়িয়া এলাকা থেকে মধ্যরাতে গ্রেফতার করা হয়। হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ধারালো রাম দা টিও উদ্ধার করা হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/নুসরাত/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত