ঢাকা, শুক্রবার, ০৯ জুন ২০২৩, ২৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০ আপডেট : ১৫ মিনিট আগে
শিরোনাম

প্রাথমিকে রমজানে পুরো মাসের ছুটির বিষয়ে সিদ্ধান্ত আজ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ২২ মার্চ ২০২৩, ১২:৪১  
আপডেট :
 ২২ মার্চ ২০২৩, ১৮:২৮

প্রাথমিকে রমজানে পুরো মাসের ছুটির বিষয়ে সিদ্ধান্ত আজ
ছবি - সংগৃহীত
নিজস্ব প্রতিবেদক

আসন্ন রমজানে পুরো মাসজুড়ে প্রাথমিক বিদ্যালয় ছুটি দেয়ার দাবি জানিয়েছেন প্রাথমিক শিক্ষকরা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এ নিয়ে বেশ সরব তারা। সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অভিন্ন ছুটি নির্ধারণের দাবি জানাচ্ছে শিক্ষক সংগঠনগুলো।

রমজান উপলক্ষ্যে স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকলেও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলা থাকবে রমজানের মাঝামাঝি অর্থাৎ ৭ এপ্রিল পর্যন্ত।

আজ বুধবার এ বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে জানা গেছে।

অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ছুটি সমন্বয় করতে সংগঠনের বাইরেও অনেক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে (ডিপিই) লিখিতভাবে আবেদন করেছে। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আলোচনা হলেও চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি মন্ত্রণালয়।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ শামসুদ্দীন গণশিক্ষা সচিব বরাবর লিখিত আবেদনে বলেন, রমজানে প্রাথমিক বিদ্যালয় ১৪ দিন খোলা থাকবে। চৈত্রের প্রচণ্ড গরমে রোজা রেখে ক্লাস নেয়া শিক্ষকদের খুবই কষ্টসাধ্য হবে। ৮০ ভাগ নারী শিক্ষক সেহরি প্রস্তুত করে সংসারের কাজ করে স্কুলে আসেন। সারাদিন স্কুল শেষে আবার ইফতারের সকল প্রস্তুতি ও সংসার পরিচালনা খুবই কষ্টকর হবে। তাছাড়া রমজান হচ্ছে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের জন্য পবিত্র কুরআন শিক্ষার উপযুক্ত মাস।

এ মাসে শুদ্ধ করে কুরআন শিখতে শিক্ষার্থী ১ থেকে ২৭ রমজান পর্যন্ত বিভিন্ন কুরআন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ভর্তি হয়। শিশুরা সাধারণত বিদ্যালয়ে না এসে কুরআন শিক্ষাকেন্দ্রে চলে যায়। তাই পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে ধর্মীয় অনুভূতির প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো বন্ধ রাখবেন এটাই ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবকদের প্রত্যাশা।

আবেদনে আরও বলা হয়, রমজান মাসে সকালে গাড়ি, সিএনজি ও রিকশা কম চলাচল করায় দূরের বিদ্যালয়গামী শিক্ষকদের যানবাহন পেতে খুবই সমস্যা হবে। সকাল বেলা রাস্তাঘাট নিরিবিলি থাকার ফলে নানা ধরনের ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপ্রীতিকর ঘটনার শিকার হতে পারেন। এসব বিষয় বিবেচনা নিয়ে প্রথম রোজা থেকে স্কুল বন্ধ রাখার দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের (ডিপিই) মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াত বলেন, করোনায় পিছিয়ে পড়ায় শিখন ঘাটতি কাটাতে এবার রোজার ছুটি কমিয়ে আনা হয়েছে। শিক্ষকদের একাধিক সংগঠনের নেতাদের লিখিতভাবে রোজায় ছুটির দাবি জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে ছুটি সমন্বয় করার চেষ্টা করা হচ্ছে। মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে নির্দেশনা এলে আমরা প্রাথমিক বিদ্যালয় অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সমন্বয় করে ছুটি দেব।

রমজানে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছুটি নিশ্চিত করতে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অভিন্ন ছুটি নির্ধারণের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশে প্রাথমিক শিক্ষক সমাজ। তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ২০২৩ সালে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫৪ দিন ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭৬ দিন ছুটি রয়েছে। তাই, সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অভিন্ন ৭৬ দিন ছুটি নির্ধারণের দাবি জানিয়ে লিখিত আবেদন করা হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/কেএ/ওএফ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত