ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯ আপডেট : ৩৯ মিনিট আগে

ঢাবির বিএনপি-জামাতপন্থী শিক্ষকদের দ্রব্যমূল্য কমানোর দাবি

  ঢাবি প্রতিনিধি

প্রকাশ : ১৬ আগস্ট ২০২২, ১২:৫৭  
আপডেট :
 ১৬ আগস্ট ২০২২, ১৩:০৪

ঢাবির বিএনপি-জামাতপন্থী শিক্ষকদের দ্রব্যমূল্য কমানোর দাবি
ছবি- প্রতিনিধি
ঢাবি প্রতিনিধি

দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনায় বিদ্যুৎ খাতে বিপর্যয় ও এবং জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপি-জামাত পন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল।

মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবন সংলগ্ন অপরাজেয় বাংলা ভাস্কর্যের পাদদেশে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বিশ্বে যখন জ্বালানি তেলের দাম কমছে তখন আত্মঘাতী একটি সিদ্ধান্তের মাধ্যমে দেশে দাম বাড়ছে। বিদ্যুৎখাতেও বিপর্যয় ঘটেছে। নিত্যপ্রয়োজনী দ্রব্যের দাম বেড়ে জনগণের ‌অবস্থা নাভিঃশ্বাস। ডিমের দামও বেড়ে গেছে। সরকার জনগণকে নিয়ে খেলতামাশা লাগিয়ে রেখেছে, ছিনিমিনি খেলছে। কারণ তারা জানে জনগণের ভোট তাদের লাগে না।

এসময় তারা এসব দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনা নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পুর্ণাঙ্গ তদন্ত দাবি করেন।

মানববন্ধনে সাদা দলের আহ্বায়ক ও পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক মো. লুৎফর রহমান বলেন, ‘আজকে আমরা জনগণের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে নিজেদের কাজ বাদ দিয়ে রোদে দাঁড়িয়েছি, শুধু জনগণের দুর্ভোগ কমাতে। বিদ্যুৎখাতের বিপর্যয় একদিনে ঘটেনি। দীর্ঘদিনের অব্যবস্থাপনা, চুরি-ডাকাতির ইফ্যাক্ট এই বিপর্যয়। তার ফলেই উৎপাদন প্রক্রিয়া প্রভাবিত হয়ে দ্রব্যমূল্য বেড়েছে।’

তেলের দাম বৃদ্ধির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘তেলের দাম বাড়ানোর পর আমাদেরকে বলা হয় এটি ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের প্রভাব। শুরুতে এটি আমরা লক্ষ করলেও পরে এটির আর সমন্বয় দেয়া যায়নি। গতকালও তেলের দাম কমেছে, কিন্তু আমাদের কমেনি। এসব দুর্ভোগ কমাতে হবে।’

প্রথম আলোর করা একটি জরিপের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, ‘এই মুহূর্তে তিন কোটিরও বেশি মানুষ দরিদ্র সীমার নিচে অবস্থান করছে। চার কোটি মানুষ দরিদ্র সীমা ছুঁই ছুঁই। এমন ক্রান্তিলগ্নে আমরা মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। জনগণের আজ দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। সরকারের উচিত দায়িত্বশীল আচরণ করে এই দুর্ভোগ কমানো।’

মানববন্ধনে ‌অন্যান্যদের মধ্যে ফিন্যান্স জিপার্টমেন্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. এমরান কাইয়ুম, অধ্যাপক ড. মো. আব্দুস সালাম, পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ও সাদা দলের আহ্বায়ক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। এসময় সাদা দলের অন্তত ২০ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচএম/ওএফ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত