ঢাকা, শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ১২ মিনিট আগে
শিরোনাম

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদককে ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৮:৩৪

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদককে ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা
ইডেন কলেজের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছাত্রীনিবাসের সামনে সংবাদ সম্মেলন। ছবি: সংগৃহীত
নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর ইডেন কলেজ ক্যাম্পাসে শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ছাত্রলীগের দুপক্ষ সড়কে মুখোমুখি অবস্থান নেয়। আটকে রাখা হয় সাধারণ ছাত্রীদের। পাল্টাপাল্টি অভিযোগের তীর ছোড়ে দুপক্ষই। এমন অবস্থায় ইডেন কলেজ শাখার সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার বিরুদ্ধে আধিপত্য বিস্তার, চাঁদাবাজি, সিট বাণিজ্য, সাধারণ ছাত্রীদের হেনস্তাসহ নানা অভিযোগ তুলে তাদের দুজনকে কলেজ ক্যাম্পাসে ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা করেছেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের ২৫ জন নেত্রী।

রোববার দুপুরে ইডেন কলেজের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছাত্রীনিবাসের সামনে সংবাদ সম্মেলনে এই হুমকি দেন ছাত্রলীগের কলেজ কমিটির ২৫ জন নেত্রী।

রোববার দুপুরে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের ৪৮ সদস্যের কমিটির সহসভাপতি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক পর্যায়ের ২৫ জন নেত্রী উপস্থিত ছিলেন। তাদের পক্ষ থেকে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান সাংগঠনিক সম্পাদক সামিয়া আক্তার ওরফে বৈশাখী।

তিনি বলেন, গতকাল রাত সাড়ে ১০টার দিকে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার উপস্থিতিতে তাদের অনুসারীরা হজরত আয়েশা সিদ্দিকা (রা.) ছাত্রীনিবাসের সামনে সহসভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসের ওপর অতর্কিত হামলা চালান। এ হামলায় জড়িত ব্যক্তিরা হলেন—সহসভাপতি নুজহাত ফারিয়া ওরফে রোকসানা, আয়েশা সিদ্দিকা ওরফে মীম, আর্নিকা তাবাসসুম ওরফে স্বর্ণা, শিরীণা আক্তার, সোমা মল্লিক ওরফে পপি, জিনাত হাসনাইন, লিমা ফেরদৌস আশরাফ লুবনা, বিজলী আক্তার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ঋতু আক্তার, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুন নাহার ওরফে জ্যোতি ও ফারজানা ইয়াসমীন ওরফে নীলা। এই হামলার ঘণ্টাখানেক আগে জান্নাতুল ফেরদৌসের হলের কক্ষে তামান্না ও রাজিয়ার অনুসারীরা হামলা চালান। তখন তার কক্ষে থাকা ল্যাপটপ ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র আত্মসাৎ করা হয়।

লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের বিভিন্ন অপকর্মের কথা জানানো হলেও তাদের কাছ থেকে নিরপেক্ষ কোনো ফলাফল পাওয়া যায়নি। আমরা অনিরাপদ বোধ করছি। হামলা-মারধর-হেনস্তার ঘটনা বারবার ঘটছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমরা এসবের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

২৫ জন নেত্রীর পক্ষে ৮ দফা দাবি তুলে ধরেন ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি মার্জানা আক্তার ওরফে ঊর্মি। দাবিগুলো হলো—ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের উপস্থিতিতে সহসভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসের ওপর অতর্কিত হামলার ঘটনায় সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া; সাধারণ শিক্ষার্থীদের প্রতিনিয়ত হেনস্তার সুষ্ঠু বিচার; ক্যাম্পাসের যেকোনো সিসিটিভি ফুটেজ লোকানোর চেষ্টা বন্ধ করা; ‘মাতৃতুল্য অভিভাবক’ ইডেন কলেজের অধ্যক্ষকে (সুপ্রিয়া ভট্টাচার্য) নিয়ে অকাট্য করে (অপমানজনক বক্তব্য) কথা বলার জবাব দেওয়া; একচেটিয়া রাজনীতি ও চাঁদাবাজি বন্ধ করা; প্রত্যেক ছাত্রী যেন নিরাপদে থাকতে পারেন, সেই ব্যবস্থা করা; (তামান্না-রাজিয়ার অনুসারীদের) গণহারে শতাধিক কক্ষ দখলের হিসাব দেওয়া এবং জান্নাতুল ফেরদৌসের যেসব অশ্লীল ছবি তোলা হয়েছে, সব নেতার সামনে সব জায়গা থেকে তা ডিলিট করা (মুছে দেওয়া) ও ছিনিয়ে নেওয়া সব জিনিসপত্র তাকে বুঝিয়ে দেয়া।

এ সময় সহসভাপতি মার্জানা আক্তার বলেন, সহসভাপতি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক মিলিয়ে এখানে আমরা ২৫ জন আছি। আমরা একসঙ্গে পদত্যাগ করব, যদি বর্তমান সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক (তামান্না ও রাজিয়া) স্বেচ্ছায় পদত্যাগ না করেন।

এই সংবাদ সম্মেলন থেকে ইডেন কলেজের ঘটনায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের করা তদন্ত কমিটির প্রতিও অনাস্থা জানান ওই ২৫ নেত্রী। এই তদন্ত কমিটিকেও অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছেন তারা।

ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সামিয়া আক্তার বৈশাখী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমাদের প্রশাসন, শিক্ষক, হল প্রভোস্টসহ সংশ্লিষ্ট সবাই এ ঘটনা সম্পর্কে সবকিছুই জানেন। কিন্তু সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে তারা জব্দ। কারণ, এর আগে রিভা আপার এ বিষয়ে একটা অডিও ফাঁস হয়েছে। সেখানে আমাদের অধ্যক্ষ ম্যাডামকে নিয়ে তিনি বলেছেন যে, ম্যাডামের নাকি কোনো ক্ষমতা নেই। সব ক্ষমতা নাকি ছাত্রলীগের সভাপতি রিভার কাছে আছে। কিন্তু ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দিন দিন এমন বৈরী আচরণ মেনে নেয়া যায় না। দিনের পর দিন এমন ঘটনা ঘটতে থাকলে সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে আমাদের ছাত্রলীগের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়ে যাবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএস

  • সর্বশেষ
  • পঠিত