ঢাকা, শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩ আশ্বিন ১৪২৮ আপডেট : ১ মিনিট আগে

শিল্পা ঘুমিয়ে পড়লেই পার্টিতে মজতেন শমিতা-রাজকুন্দ্রা

  বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশ : ০৪ আগস্ট ২০২১, ১৬:৪০

শিল্পা ঘুমিয়ে পড়লেই পার্টিতে মজতেন শমিতা-রাজকুন্দ্রা
ছবি সংগৃহীত
বিনোদন ডেস্ক

বলিউডের সাড়া জাগানো অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে পর্নোগ্রাফিকাণ্ডে গ্রেপ্তার করে রিমান্ডে নিয়েছে মুম্বাই পুলিশ। কুন্দ্রা কাহিনিতে একের পর এক তথ্য প্রকাশ্যে আসছে। রাজ কুন্দ্রার গ্রেপ্তারির পর থেকেই চলছে নানান চর্চা। যত দিন যাচ্ছে, ততই যেন আগুনের মতো ছড়াচ্ছে শিল্পা শেঠি ও রাজ কুন্দ্রার খবর। নেটদুনিয়ায় ঘুরপাক খাচ্ছে রাজের একাধিক পুরনো সাক্ষাৎকার।

পর্ন সিনেমা তৈরি এবং অ্যাপের মাধ্যমে তা ছড়িয়ে দেয়ার মতো গুরুতর অভিযোগে ১৯ জুলাই রাতে গ্রেপ্তারের পর আপাতত পুলিশি হেফাজতে রয়েছেন রাজ কুন্দ্রা। অশ্লীল ভিডিও দেখার অ্যাপ ‘হটশটস’-এর মালিকানায় ছিলেন রাজ।

এদিকে রাজ কুন্দ্রার গ্রেপ্তারির পর থেকেই বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে শিল্পা শেঠি। এবার ভগ্নীপতির নাম পর্ন-কাণ্ডে জড়ানোর পর থেকে বাঁচতে পারেননি শিল্পা শেঠির ছোট বোন শমিতা শেঠিও। পুলিশের পক্ষ থেকে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা না হলেও বারবার উঠে আসছে তার নাম। রাজ কুন্দ্রা ‘বলি ফেম’ অ্যাপের একটি ছবিতে শ্যালিকাকে কাস্ট করবার পরিকল্পনা করেছিলেন, এমন দাবি করেন পর্নোকাণ্ডের অন্যতম অভিযুক্ত গহনা বশিষ্ঠ।

রাজ-শিল্পা-শমিতার একাধিক পুরোনো ভিডিও নতুন করে ছড়িয়ে পড়ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। পর্নোকাণ্ডে দিদি এবং জামাইবাবুর পাশেই রয়েছেন শমিতা, তা ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিয়েছেন অভিনেত্রী। শিল্পার সঙ্গেই ছোট থেকে দারুণ বন্ডিং শমিতার, তবে জানা যায় শিল্পার বিয়ের পর নাকি অবসাদে ভুগছিলেন শমিতা!

দ্য কপিল শর্মা শো-তে হাজির হয়ে অকপটে এই কথা মেনে নিয়েছিলেন শমিতা। ছোট থেকেই বন্ধুর মতো একসঙ্গে বড় হয়েছেন শিল্পা-শমিতা। বিয়ের পর শিল্পা বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ায় ডিপ্রেশনে চলে গিয়েছিলেন শমিতা, এ কথা নিজের মুখে বলেন তিনি। তবে জামাইবাবুকে দারুণ পছন্দ তার।

একই শো তে মজার ছলে রাজের একটি মন্তব্য ঘিরেও তোলপাড় হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে রাজ জানিয়েছিলেন, শিল্পার থেকে বেশি তিনি শমিতার সঙ্গে পার্টি করেন।

আসলে বলিউডের অভ্যন্তরে সকলেই জানেন শিল্পা ঘড়ির কাঁটা ধরে সমস্ত কাজ করতে ভালোবাসেন। সময়ে ঘুম থেকে ওঠেন, খাবার খান, শরীরচর্চা করেন আবার ঘুমাতে যান। এমনকি, বলিউডে রাত জেগে পার্টি করা তারকাদের দলে কখনোই দেখা মেলেনা শিল্পার। সে প্রসঙ্গেই কপিল শর্মার প্রশ্নের উত্তরে মজার ছলে রাজ জানিয়েছিলেন, ‘শিল্পা ৭টায় খাবার খেয়ে রাত ৯টার মধ্যে বই পড়ে ঘুমিয়ে পড়ে। আর তারপর আমি পার্টি করতে হলে সোজা ফোন লাগাই শমিতাকে। আমরা দু’জনেই পার্টি করতে ভালোবাসি। এই কারণেইতো ওকে বিয়ের জন্য আমি এখনও জোর করছি না।’ একথা শুনে শিল্পা আর শমিতা দু'জনেই হেসে ওঠেন।

কিন্তু রাজের করা এই মন্তব্য নিয়েই এখন নিন্দার ঝড়। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এই ভিডিও ক্লিপ। শ্যালিকার দিকে কেন এরকম নজর ছিল তার, বউয়ের উপস্থিতিতে কেন পার্টি করতেন থেকে শুরু করে একাধিক কুরুচিকর মন্তব্যে ভরে গিয়েছে সেসব ভিডিও।

এদিকে গত ২ আগস্ট বম্বে হাইকোর্টে ঝুলে থাকল রাজ কুন্দ্রার ভাগ্য। এদিন সম্পন্ন হয় রাজ কুন্দ্রা ও তার সহযোগী রায়ান থর্পের জামিনের আর্জির শুনানি। সওয়াল-জবাব পর্ব শেষে দুই অভিযুক্তের জামিনের আবেদন রায় সংরক্ষিত রাখল বম্বে হাইকোর্ট। খুব সম্ভবত আগামী বৃহস্পতিবার এই আবেদনের রায় ঘোষণা করবে আদালত। ততদিন পর্যন্ত আথার রোড জেলই ঠিকানা কোটিপতি ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রার।

বাংলাদেশ জার্নাল/অই/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত