আমাকে দিয়ে কখনও রোমান্টিকতা হবে না: সাদিয়া আয়মান

প্রকাশ : ২০ জুন ২০২২, ১৬:০২ | অনলাইন সংস্করণ

  ইমরুল নূর

তিন বছর আগে ‘টু বি ওয়াইফ’ নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে শোবিজে পা রাখেন মডেল ও অভিনেত্রী সাদিয়া আয়মান। ইমরাউল রাফাত পরিচালিত এ নাটকে জিয়াউল ফারুক অপূর্বর বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন তিনি। এরপর রবি, নেসক্যাফে, অপ্পো, লিভন, বিকাশ, প্যারাসুট, বোরো প্লাস, ইস্পাহানি মির্জাপুর চা, গ্রামীণফোনসহ প্রায় ৪০টিরও বেশি বিজ্ঞাপনের মডেল হন। ‘টু বি ওয়াইফ’ ছাড়া কেন্দ্রীয় চরিত্রে ‘কবি প্লাস কুসুম’ নাটকেও অভিনয় করেন তিনি। নাটক ও বিজ্ঞাপনের বাইরে প্রথমবারের মত নাম লিখিয়েছেন বড় পর্দাতেও। গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত ‘কাজল রেখা’ সিনেমার নাম ভূমিকায় অভিনয় করছেন।

এরমধ্যে আসছে ঈদকে ঘিরে নতুন একটি নাটকের শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন। নাটকের নাম ‘ফুলের নামে নাম’। মিজানুর রহমান আরিয়ান পরিচালিত এ নাটকটিতে তিনি প্রথমবারের মত অভিনয় করেছেন তৌসিফ মাহবুবের বিপরীতে। 

নাটকটি সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘খুবই সুন্দর রোমান্টিক একটা গল্প, আমি যখন গল্পটা শুনি তখনই মনে হয়েছে যেন আমি গল্পের বই পড়ছি। বৃষ্টির জন্য আমাদের কাজ কিছুটা বাকিটা রয়েছে, পরে একদিন শুট করতে হবে। কাজটা খুবই ভালো হয়েছে।’

কাজের অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে সাদিয়া বলেন, ‘আরিয়ান ভাইয়ার কাজ আমার সবসময় খুব পছন্দের। উনি এত সুন্দর করে রোমান্টিক গল্প বলতে পারেন, যা আসলেই দারুণ। আমি সবসময় মনে করতাম যে, আমাকে দিয়ে কখনও রোমান্টিক চরিত্র হবে না বা আমি করতে পারবো না। কারণ, আমার মধ্যে ওই রোমান্টিকতা নেই বা রোমান্টিক নই আমি। কিন্তু উনার গল্পগুলো এত সুন্দর, সরল আর সাবলীল যে আমার মনে হয়েছে, আমি চাইলেই হয়তো সেটা নিজের মধ্যে ফুটিয়ে তুলতে পারবো।

আর তৌসিফ ভাইয়া পুরো সময়টা জুড়েই অনেক কো-অপারেটিভ ছিলেন। একজন নতুন শিল্পী বলে অনেকেই যেমন একটি অবহেলা করা বা এড়িয়ে যাওয়া; এরকম কোন কিছুই এই সেটে পাইনি। আরিয়ান ভাইয়া, তৌসিফ ভাইয়া দুজনে এবং পুরো টিম থেকে অনেক স্বাধীনতা পেয়েছি, অনেক আরাম করে কাজ করতে পেরেছি। বলা যায়, সবাই অনেক হেল্পফুল ছিলো। তাছাড়া তাদের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছি, অনেক পরামর্শ পেয়েছি।’

এরমধ্যে সাদিয়া আজকে একটি বিজ্ঞাপনের শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন। এটি নির্মিত হচ্ছে লাফিং এলিফেন্টের ব্যানারে। প্রথমবারের মত বাংলাদেশে ‘কিটক্যাট’ এর বিজ্ঞাপন নির্মিত হচ্ছে। তিনি বলেন, চারটি গল্পের সংমিশ্রণে এটি নির্মিত হচ্ছে। আর ‘কিটক্যাট’ এবারই প্রথম আমাদের দেশে বিজ্ঞাপন বানাচ্ছে।

‘কাজল রেখা’ সিনেমার কাজ প্রায় শেষদিকে। এরমধ্যে দুই লটের কাজ শেষ হয়েছে, তৃতীয় লটের কাজ শুরু হবে কিছুদিনের মধ্যেই। সিনেমাটিতে কাজ প্রসঙ্গে সাদিয়া বলেন, সিনেমার শুটিংগুলো আসলে কেমন হয়, আমি জানিনা। তবে সেলিম ভাইয়ার টিমে কাজ করে আমি অনেক কিছু শিখেছি। একদমই পরিপাটি ও চমৎকারভাবে গুছানো একটা টিম। সেটের সবাই এত বেশি আন্তরিক, আমি কাজ করে মুগ্ধ। আমি সবার ছোট হওয়ায় সবার আদরও পেয়েছি অনেক বেশি। প্রথম লটের কাজ শেষ করার পর আমি নিজে যেমন পুরো টিমকে মিস করছিলাম তেমনি টিমের সবাই আমাকে ভীষণ মিস করছিলো। সবাই যখন আমাকে জানাচ্ছিলো যে তারা আমাকে মিস করছে তখন মনে হতো কতটা আন্তরিক সবাই। পুরো সময়টাই এত মজা করে কাজ করেছি যা সত্যিই অনেক মেমোরেবল। আমি দুইটা লটে কাজ করেছি, আবার শিগগিরই তৃতীয় লটে অংশ নেবো।  

বাংলাদেশ জার্নাল/আইএন