ঢাকা, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯ আপডেট : ১৮ মিনিট আগে

কী থাকছে ‘সংসার আনলিমিটেড’-এ?

  বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশ : ১৮ আগস্ট ২০২২, ১৪:৪২  
আপডেট :
 ১৮ আগস্ট ২০২২, ১৪:৫৯

কী থাকছে ‘সংসার আনলিমিটেড’-এ?
বিনোদন ডেস্ক

একটি সংসারে প্রতিদিন নানারকম ঘটনাই ঘটে। হাসি-কান্না, সুখ-দুঃখ সবকিছু মিলিয়েই জীবন। কারো কাছে সংসার সামলানো সহজ আবার কারো কাছে কঠিন। সংসারে প্রতিদিনের ঝুট-ঝামেলা নিয়ে নির্মিত হয়েছে চরকি ফ্লিক ‘সংসার আনলিমিটেড’। এটি পরিচালনা করেছেন আবু হায়াত মাহমুদ।

আজ বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় চরকিতে মুক্তি পাচ্ছে এটি। কমেডি জনরার এই গল্পে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইরেশ যাকের। সাথে রয়েছে মৌসুমি হামিদ, সায়রা জাহান, মীর রাব্বিসহ বেশ কিছু শিশুশিল্পী।

অভিনেতা ইরেশ যাকের বলেন, ‘এই গল্পের বিষয়টা খুব মজার ছিল। পুরুষতান্ত্রিক সমাজে এরকম গল্প আরও অনেক হয়েছে তবে মজা করে গল্প বলাটা খুব জরুরি। কো-আর্টিস্ট হিসেবে যারা ছিলেন মৌসুমি, রাব্বি, সায়রা তারা খুব কাছের মানুষ। তবে এই কাজ করতে দিয়ে আমি খুব মুগ্ধ হয়েছি আমার শিশু সহ-অভিনেতাদের দ্বারা।

একটা ঘটনা বলতেই হয়- এই কাজটা করার সময় আমার মেয়ে হসপিটালে ছিল। তো সে সময় অন্যরকম একটা অনুভূতি কাজ করছিল। আর সেটে আমার সাথে তিনজন বাচ্চা অভিনয় করেছেন। তাদের মধ্যে মুমতাহিনাকে দেখলাম প্রথম দিকে কোন কথায় বলছে না। একটি দৃশ্যে ওকে অনেক কান্না করতে হবে। কিন্তু সে একদম নির্লিপ্ত, কারো কোন কথা সে শুনতে পাচ্ছে কিনা সেটাও বোঝা যাচ্ছিল না। তবে পরিচালক যেই অ্যাকশন বলল আর ও এতো ভালো, এতো প্রাণবন্ত অভিনয় করল যে আমরা সবাই অবাক হয়ে দেখলাম। পরে বুঝলাম যে সে আসলে আমাদের অনেকের চেয়ে অনেক অভিজ্ঞ শিল্পী। বাংলাদেশের চৌকশ শিল্পীদের মধ্যে একজন।’

চরকির পর্দায় প্রথমবারের মতো দেখা যাবে মৌসুমি হামিদকে। তিনি বলেন, ‘চরকির সাথে এটা আমার প্রথম কাজ হলেও পুরো টিম মানে রনি ভাইসহ সবাই এতো কাছের আর এতো আগে থেকে পরিচিত যে কাজ করতে গিয়ে কোনো রকম বাঁধা মনে হয়নি। সংসার আনলিমিটেড-এ আমার অংশ মানে স্ক্রিন টাইম বেশ অল্প। তবুও গল্প আর আমার চরিত্রটা ভীষণ ভীষণ ইন্টারেস্টিং।

গল্পের রাইটার মাসুম ভাই খুব মজা করে গল্পটা লিখেছেন। সেই সাথে পরিচালক হায়াত ভাইয়ের সাথেও আমার অনেক কাজ হয়েছে। তিনি খুব শান্ত- সৃজনশীল মানুষ। সিনেমাটোগ্রাফার রাজু রাজ ভাইয়ের কথা স্পেশিয়ালি মেনশন করতে চাই। সহশিল্পীরাও সবাই খুব কাছের মানুষ। শুধু রাব্বি ভাইয়ের সাথে আমি এই প্রথম স্ক্রিন শেয়ার করলাম। সব মিলিয়ে খুব দারুণ একটা কাজের অভিজ্ঞতা হয়েছে।’

সংসার আনলিমিটেড-এর আরেকজন অভিনেতা মীর রাব্বি। তিনি কাজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করে বলেন, ‘চরকির সাথে কাজ শুরু করার একটা ইচ্ছা ছিল এবং সেটা হল ফাইনালি। একসাথে আরও কাজ করার প্রত্যাশা রইল। কনটেন্টের গল্প একটু অন্যরকম। আমাদের প্রতিদিনের জীবন যাপনের অনেক সিরিয়াস কিছু বিষয় এবং তার ভেতরের বোধগুলো সুন্দর করে একটু স্যাটায়ার আঙ্গিকে প্রেজেন্ট করা হয়েছে। সংসার আনলিমিটেড নিঃসন্দেহে সুন্দর একটি পারিবারিক গল্প।’

অভিনেত্রী সায়রা জাহান বলেন, ‘আমাদের প্রতিটা পরিবারের গল্প সংসার আনলিমিটেড। এই কাজটা করতে গিয়ে আমার হাউজওয়াইফদের প্রতি সম্মান আরও বেড়ে গেছে। আমার মনে হয় দর্শক দেখার পর তাদেরও এমন অনুভূতি হবে।’

পরিচলক আবু হায়াত মাহমুদ বলেন, ‘সাধারণত আমরা যে গল্প, যে ঘটনাগুলো প্রতিদিন দেখে অভ্যস্ত সেরকম একটা গল্পই সংসার আনলিমিটেড। আমাদের এই সাব-কনটিনেন্টে এমন গল্প খুব একটা বলা হয় না। আমরা চেষ্টা করেছি এই গল্পটা দর্শকদের জন্য সুন্দর করে তুলে ধরতে। এখন দর্শক কীভাবে নিবে সেটা দর্শকের বিষয়। আমাদের পুরো টিম গত কয়েকদিন ধরে নিজ নিজ জায়গা থেকে সম্পূর্ণ চেষ্টা করেছেন। আমাদের অনুরোধ থাকবে আপনারা কাজটা দেখুন।’

বাংলাদেশ জার্নাল/আইএন

  • সর্বশেষ
  • পঠিত