ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ আপডেট : ৬ মিনিট আগে

নিট পোশাক রপ্তানিতে অপচয় সুবিধা দ্বিগুণ বাড়লো

  আনিসুর রহমান

প্রকাশ : ২৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২০:৩৬

নিট পোশাক রপ্তানিতে অপচয় সুবিধা দ্বিগুণ বাড়লো
আনিসুর রহমান

নিট পোশাক রপ্তানিকারকদের জন্য অপচয় সুবিধা পুনঃনির্ধারণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ বাংক। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে রোববার এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

সার্কুলারে বলা হয়, নিট পোশাক রপ্তানিকারকরা এখন থেকে বেসিক নিট পণ্য যেমন টি-র্শাট, পলো র্শাট, ট্রাউজার্স, শর্টস, পাজামা এধরনের পণ্যে সর্বোচ্চ ২৭ শতাংশ পর্যন্ত অপচয় সুবিধা পাবেন। এই ২৭ শতাংশের মধ্যে নিটিং এ ১ শতাংশ, ডায়িং ও ফিনিশিং এ ৯ শতাংশ, কাটিং এ ১৩ শতাংশ, প্রিন্টিং ও এমব্রয়ডারিতে ১ শতাংশ , সুয়িং এ ১ শতাংশ, ওয়াশিং এ ১ শতাংশ এবং ফিনিশিং ও ইন্সপেকশনে ১ শতাংশ করে অপচয় দেখানো যাবে।

সার্কুলারে আরো বলা হয়, স্পেশাল নিট আইটেম যেমন রম্পার্স, ট্যাংক টপস, গাউন , হুডিস, আন্ডারওয়্যার এধরনের পণ্যগুলোর ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৩০ শতাংশ অপচয় সুবিধা পাওয়া যাবে।

এই ৩০ শতাংশের মধ্যে নিটিং এ ২ শতাংশ, ডায়িং ও ফিনিশিং এ ৯ শতাংশ, কাটিং এ ১৫ শতাংশ, প্রিন্টিং ও এমব্রয়ডারিতে ১ শতাংশ , সুয়িং এ ১ শতাংশ, ওয়াশিং এ ১ শতাংশ এবং ফিনিশিং ও ইন্সপেকশনে ১ শতাংশ করে অপচয় দেখানো যাবে।

সুয়েটার, জাম্পার , পুলওভার, জাম্পার, কার্ডিগানস, ভেস্ট, শকস, গ্লোভস এধরণের পণ্যগুলিতে সর্বোচ্চ ৪ শতাংশ অপচয় সুবিধা পাওয়া যাবে।

এই ৪ শতাংশের মধ্যে নিটিং এ ২ শতাংশ, ওয়াশিং ফিনি শিং এ ১ শতাংশ এবং ইনস্পেকশনে ১ শতাংশ অপচয় দেখানো যাবে।

নিট পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারকদের সংগঠন যদিও এই সুবিধা বাড়িয়ে ৩৫ থেকে ৪০ শতাংশ করার দাবি জানিয়ে আসছিল।

অপচয় সুবিধা বাড়ানোর বিষয়ে এ খাতের উদ্যোক্তাদের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল। সর্বশেষ ১৯৯৮ সালে অপচয় সুবিধা নির্ধারণ করা হয়। তখন সবক্ষেত্রেই ১৬ শতাংশ অপচয় সুবিধা দেয়া হতো।

বাংলাদেশ জার্নাল/আ,র/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত