ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ আপডেট : ৯ মিনিট আগে

শেষ পর্যন্ত বিজেপিতে টিকবেন তো ভিন্ন সুরের বরুণ?

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৭:১৩  
আপডেট :
 ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৭:২২

শেষ পর্যন্ত বিজেপিতে টিকবেন তো ভিন্ন সুরের বরুণ?
মা মেনেকা গান্ধীর সঙ্গে বরুণ গান্ধী। ফাইল ছবি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মা মেনেকা গান্ধী, আর বাবা প্রয়াত সঞ্চয় গান্ধী। বরুণ গান্ধী যেনো ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির এক ভিন্ন সুর।

বরুণ ও মেনেকা ভারতের বিখ্যাত নেহেরু-গান্ধী পরিবারের প্রতিনিধি। তবে তাদের শিবির কংগ্রেস নয়, বিজেপি- এটাই অনেকের কাছে বিস্ময়ের। তবে সম্প্রতি নানা ইস্যুতে নিজ দল বিজেপির সঙ্গে অমানৈক্য ঘটেছে তাদের।

মহাত্মা গান্ধীর হত্যাকারী নিথুরাম গডসের প্রসঙ্গ নিয়ে প্রথমে মতানৈক্যের বিষয়টি স্পষ্ট হয়ে সামনে আসে। কিছু ভারতীয় নিথুরাম গডসেকে ‘দেশপ্রেমিক’ আখ্যা দিয়ে তার প্রশংসায় সরব হয়েছিলেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। তাদেরকে কঠোর ভাষায় সমালোচনা করেছেন বরুণ।

এখানেই শেষ নয়। ভারতে যে কৃষক আন্দোলন চলছে, সেখানে কৃষকদের প্রতি বরুণ গান্ধী ও তার মা মেনেকা গান্ধী সহমর্মী। সম্প্রতি বিজেপি সরকারের উপ-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অজয় মিশ্রের পুত্রের গাড়ির নিচে চাপা পড়ে মৃত্যু হয় চার আন্দোলনরত কৃষকের।

ওই মৃত্যুর জেরে সরাসরি কৃষকদের পক্ষে অবস্থান নেন বরুণ। তিনি কৃষকদের সমর্থন জানিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাসও দেন। তিনি কৃষকদের প্রতি সুবিচার করার জন্য আহ্বান জানান। এ নিয়ে বিজেপির ওই মন্ত্রী ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছিলেন।

এর মাসুল দিতে হয়েছে বরুণ ও তার মা মেনেকাকে। তাদেরকে বিজেপির ৮০ সদস্যের নির্বাহী কমিটি থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। কিন্তু বরুণ শিরদাড়া বাঁকা করেননি।

এবার আরও এক ধাপ এগিয়ে কথা বললেন বরুণ। এখন যে ইস্যুটি তিনি তুলেছেন, তা নিয়ে অস্বস্তিতে রয়েছে বিজেপি। কিন্তু এসব আমলে নিচ্ছেন না বরুণ। শনিবার এনডিটিভির খবরে বলা হয়, বরুণ ভারতের কৃষি আইন ‘পুনর্বিচেনা’ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

মূলত তিনটি কৃষি আইন বাতিলের দাবি জানিয়েই আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন ভারতের কৃষকরা। গত বছরের শেষ দিকে তারা এ আন্দোলন শুরু করেন, যা অব্যহতভাবে চলছে।

ইতোমধ্যে ইস্যুটি নিয়ে কৃষক নেতা ও সরকারের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদের একাধিক বৈঠক হয়েছে। কিন্তু বরফ গলেনি। কৃষকরা তাদের দাবি থেকে সরে আসছেন না।

ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যের পলিবিহিত থেকে লোকসভা সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন বরুণ গান্ধী। তিনি ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর কনিষ্ট পুত্র সঞ্চয় গান্ধীর পুত্র, যিনি ১৯৮০ সালের ২৩ জুন এক বিমান দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছিলেন।

ইন্দিরা গান্ধীর সঙ্গে রাজীব গান্ধী ও কনিষ্টপুত্র সঞ্চয় গান্ধী (বায়ে)। ফাইল ছবি

সম্প্রতি উত্তর প্রদেশের কয়েকজন কৃষক তাদের ফসল পুড়িয়ে দিয়ে প্রতিবাদ জানান। এসব ফসল ১৫ দিন ধরে থাকে অবিক্রিত। এর জেরে বরুণ টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করে বলেন, ‘আমাদের উচিৎ কৃষি আইন পুনর্বিচেনা করা।’

আরও আছে। উত্তর প্রদেশের বর্তমানে ক্ষমতায় থাকা যোগী আদিত্যনাথেও কঠোর সমালোচক এ বরুণ গান্ধী। রাজ্যটির তারাই এলাকায় বন্যায় বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়। এ নিয়ে বৃহস্পতিবার এক টুইটে যোগীর প্রশাসনের সমালোচনা করেন বরুণ।

ভারতের কেন্দ্রে এখন বিজেপি নেতৃত্বাধীন নরেন্দ্র মোদি সরকার। আর বিজেপির ভেতরে থেকেই ভিন্ন মত প্রকাশ করে চলেছেন বরুণ গান্ধী। তাকে কি শেষতক মেনে নেবে বিজেপি? ইতোমধ্যে দলে তার প্রভাব কমেছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/ টিটি

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত