বিশ্বব্যাপী বাড়ছে দুর্নীতি, সংকটে মানবাধিকার

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:০৪ | অনলাইন সংস্করণ

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রতীকী ছবি: আল জাজিরা

কোভিড-১৯ মহামারিকে বিভিন্ন দেশ মৌলিক অধিকার সংকুচিত করার একটি অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করছে। এ পরিস্থিতিতে মানবাধিকার ও গণতন্ত্র সমুন্নত রাখতে দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই আরও জোরালো করতে হবে।

দুর্নীতিবিরোধী প্রতিষ্ঠান ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের বার্ষিক করাপশন প্রিপারেশন্স ইনডেক্স শীর্ষক প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। মঙ্গলবার আল জাজিরা এ খবর জানায়।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘বিশ্বব্যাপী মানবাধিকার ও গণতন্ত্র হুমকির মুখে।’

জার্মানির বার্লিনভিত্তিক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানটি ব্যবসায়ী নেতা ও বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে বিশ্বের ১৮০ দেশ ও অঞ্চলে সরকারি খাতের ওপর এ সমীক্ষা চালায়।

দুর্নীতির মাত্রা অনুযায়ী তারা শূন্য থেকে ১০০ পর্যন্ত স্কোর নির্ধারণ করে দেন। চলতি প্রতিবেদনে (দশম) বিশ্বের দুই তৃতীয়াংশ দেশের স্কোর হয়েছে ৫০ এর নিচে।

দুর্নীতির গড় স্কোর দেখা গেছে ১০০ এর মধ্যে ৪৩। প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বব্যাপী দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ক্ষেত্রে মিশ্র ফলাফল দেখা গেছে; অর্থাৎ কোনো দেশ এগোলেও পিছিয়েছে অন্য দেশগুলো।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১২ সালের পর বিশ্বের ২৫টি দেশ (দুর্নীতির ঠেকাতে) ব্যাপক উন্নতি করেছে (স্কোর বাড়িয়েছে)। তবে একই সময়ে ২৩টি দেশের স্কোরে অবনতি হয়েছে।

প্রাপ্ত তথ্যের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, বেনামী শেল কোম্পানিগুলোর দৌরাত্ব ঠেকানোর সম্ভাবনা জাগালেও পরিচ্ছন্ন সরকারি খাতের অনেক উচ্চ স্কোরধারী দেশই দুর্নীতিকে অনুমোদন দিয়ে যাচ্ছে।

একটি শেল কোম্পানির সাধারণত কোনো বাস্তবিক স্থান, চাকরিজীবী, পণ্য বা রাজস্ব থাকে না। এটা কেবল গোপনে অর্থ জমা রাখার জন্য ব্যবহার করা হয়।

কখনো কখনো এগুলোর মাধ্যমে মানি লন্ডারিংয়ের মতো অবৈধ কার্যকলাপও হয়।

এ ধরনের উচ্চ র‌্যাংকিংয়ের একটি দেশ সুইজারল্যান্ড, যেখানে শেল কোম্পানিগুলোর প্রতি দেশটির কর্তৃপক্ষের সহিষ্ণুতা দেখানোয় তা করস্বর্গে পরিণত হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দুর্নীতি কেবল ডলার বা সেন্ট দিয়ে মাপা যাবে না। আর্থিক দুর্নীতি আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও বিচার ব্যবস্থায়ও ছড়িয়ে পড়ছে, যা গুরুতর অপরাধের দায়মুক্তি দিতে পারে।

এর ফলে মানবাধিকার ভূগছে। চলতি বছরে বিশ্বে যেসব মানবাধিকার কর্মীর প্রাণ গেছে, তাদের প্রায় সবাই মারা গেছেন উচ্চ দুর্নীতিগ্রস্ত দেশগুলোতে।

বাংলাদেশ জার্নাল/ টিটি