ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ আপডেট : ৮ মিনিট আগে

পদত্যাগ করতে চান না বরিস জনসন

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ০৯:৪১  
আপডেট :
 ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১০:১৭

পদত্যাগ করতে চান না বরিস জনসন
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

লকডাউনের মধ্যে পার্টি আয়োজনের ঘটনার জেরে পদত্যাগ করবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যম বিবিসির ‘প্রাইম মিনিস্টারস কোয়েশ্চেনস’ শীর্ষক লাইভ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে এই মন্তব্য করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে কনজারভেটিভ পার্টি নেতৃত্বাধীন সরকারের প্রধানমন্ত্রী জনসনকে প্রশ্নবাণে জর্জরিত করেন লেবার পার্টিসহ স্কটিশ ন্যাশনালিস্ট এমপিরা। ৩৫ মিনিটের ওই সেশনে কেউ তাকে বর্তমানে আলোচনার তুঙ্গে থাকা রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা বা অন্য কোনো বিষয়ে প্রশ্ন করেননি। বিরোধীদের একটাই দাবি- ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে পার্টিতে যোগ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী অপরাধ করেছেন এবং এ জন্য তার পদত্যাগ করতে হবে।

করোনা ভাইরাস মহামারীর মধ্যে লকডাউনের সময় মদপানের একাধিক পার্টি আয়োজনের অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। এ নিয়ে ব্রিটিশ ক্যাবিনেট অফিস ও পুলিশ আলাদাভাবে তদন্তও শুরু করেছে।

এদিকে পার্লামেন্টে বিরোধীদল লেবার পার্টির নেতা কির স্টারমার জনসনকে প্রশ্ন করেন, মন্ত্রীদের আচরণবিধি অনুযায়ী, কোনও মন্ত্রী জেনেশুনে পার্লামেন্টকে ভুল পথে পরিচালিত করলে পদত্যাগ করতে হবে, এই নিয়ম তার জন্যও প্রযোজ্য কি না? জবাবে বরিস জনসন বলেন, অবশ্যই।

এরপর স্টারমার আবার বলেন, তিনি (জনসন) পার্লামেন্টকে বিভ্রান্ত করে থাকলে তাকে পদত্যাগ করতে হবে। তাহলে আপনি কি এখন পদত্যাগ করবেন? উত্তরে জনসন বলেন, না।

২০২০ সালের ২০ মে ডাউনিং স্ট্রিটের বাগানে মদের পার্টি করেছিলেন জনসন। কোভিড-১৯ মহামারী রুখতে যুক্তরাজ্য জুড়ে তখন কঠোর লকডাউন চলছিল। ওই পার্টিসহ লকডাউনের মধ্যে সরকারি কার্যালয়গুলোতে আয়োজিত পার্টি নিয়ে তদন্ত করছেন কেবিনেট অফিসের কর্মকর্তা সু গ্রে। তার তদন্তের ফল কখন প্রকাশ করা হবে তা তাৎক্ষণিকভাবে স্পষ্ট হওয়া যায়নি। বিশেষ করে পুলিশি তদন্ত শুরুর পর বিষয়টি নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে কনজারভেটিভ পার্টির ইতিহাসে ৩০ বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে সবচেয়ে বড় জয় নিয়ে ক্ষমতায় আসেন বরিস জনসন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত