ঢাকা, শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ২৭ মিনিট আগে
শিরোনাম

ইতালিতে ভোট শুরু, এগিয়ে ডানপন্থীরা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৫৬  
আপডেট :
 ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৩:০৮

ইতালিতে ভোট শুরু, এগিয়ে ডানপন্থীরা
ইতালির রোমে নির্বাচনের সময় একজন নির্বাচনী কর্মী একজন ভোটারকে ব্যালট দিচ্ছেন। ছবি: রয়টার্স
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইতালি জুড়ে রোববার সংসদীয় নির্বাচনের ভোট শুরু হয়েছে, লক্ষ লক্ষ ইতালীয়রা একটি জাতীয় নির্বাচনে তাদের ব্যালট দেয়ার জন্য প্রস্তুত। যেখানে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে দেশটির সবচেয়ে ডানপন্থী দল ক্ষমতায় আসার এবং প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী পাওয়ার পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে৷। স্থানীয় সময় রোববার সকাল ৭টা থেকে রাত ১১ পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে। আনুষ্ঠানিক ফলাফল সোমবার।

জুলাই মাসে বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী মারিও ড্রাঘির সরকারের পতনের পর রাজনৈতিক অন্তর্দ্বন্দ্বের কারণে গ্রীষ্মকালে নির্বাচনী প্রচার শুরু হয়।

প্রায় ৫ কোটিও বেশি ইতালীয়রা যার মধ্যে ৪৭ লাখ যারা বিদেশে থাকে ভোট দেয়ার মাধ্যমে দেশটি সংসদের নতুন প্রতিনিধি নির্বাচন করবেন। যার মধ্যে সিনেটের ২০০ সদস্য এবং ৪০০ জন চেম্বার অফ ডেপুটি।

১০ সেপ্টেম্বর প্রাক-নির্বাচন নিষেধাজ্ঞার আগে প্রকাশিত সর্বশেষ জরিপ অনুসারে, অতি-ডানপন্থী দল ফ্রেটেলি ডি'ইতালিয়া (ইতালির ব্রাদার্স) এর নেতা জর্জিয়া মেলোনি প্রচারে আধিপত্য বিস্তার করছেন। যেখানে তিনি ২৫ শতাংশ ভোট পেয়েছিলেন।

জনমত জরিপে উঠে এসেছে, এবারের নির্বাচনে ইতালির প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পথে মেলোনি। জয়ী হলে অভিবাসন বিরোধী পপুলিস্ট মাত্তেও সালভিনির লিগ এবং অক্টোজেনারিয়ান মিডিয়া টাইকুন সিলভিও বেরলুসকোনির ফোরজা ইতালিয়াকে নিয়ে ডানপন্থী সরকার গঠন করতে পারে তার দল।

জর্জিয়া মেলোনি

এদিকে, সর্বশেষ জরিপ অনুসারে এনরিকো লেট্টার নেতৃত্বে প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্রেটিক পার্টি, যারা ২২ শতাংশ ভোট পেয়েছে। তবে অন্য কেন্দ্র এবং বাম-দলগুলির সাথে একটি বিস্তৃত জোট গঠন করতে ব্যর্থ হয়েছে। যা এই নির্বাচনে তাদের জয়ের সম্ভাবনা হ্রাস করেছে।

অন্যদিকে জিউসেপ কন্তের ফাইভ স্টার মুভমেন্ট, যাকে পর্যবেক্ষকরা একটি মরিবন্ড পার্টি হিসাবে বিবেচনা করেছিল, দেশটির দক্ষিণে একটি শক্তিশালী প্রচারণার পরেও ১৩ শতাংশ ভোট পেয়েছে।

যদিও সোমবার ফলাফল প্রত্যাশিত, বিশ্লেষকরা বলছেন যে ইতালিতে নতুন সরকার বসতে কয়েক সপ্তাহ সময় লাগবে। একবার ফলাফল নিশ্চিত হয়ে গেলে, নতুন আইনপ্রণেতারা দুটি চেম্বারের সভাপতিদের জন্য ভোট দেবেন, যারা দলের নেতাদের সাথে রাষ্ট্রপতি সার্জিও ম্যাটারেলার সাথে পরামর্শ শুরু করবেন।

সূত্র : আল জাজিরা

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত