ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে
শিরোনাম

চলতি বছর ভারত ছেড়েছেন ৮ হাজার কোটিপতি

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৭:৩৪  
আপডেট :
 ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৭:৫৪

চলতি বছর ভারত ছেড়েছেন ৮ হাজার কোটিপতি
প্রতিকী ছবি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ধনী ব্যক্তিদের তাদের দেশ ছেড়ে অন্য দেশে বসতি স্থাপনের হার ব্যাপকভাবে বেড়েছে। এই তালিকায় রয়েছে কয়েক হাজার ভারতীয় কোটিপতি। এই বিষয়ে হেনলি অ্যান্ড পার্টনার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২২ সালে ৮ হাজার ভারতীয় কোটিপতি দেশ ছেড়েছেন।

বিজনেস ইনসাইডারে প্রকাশিত হেনলি অ্যান্ড পার্টনার্স-এর রিপোর্ট দেখা গেছে, অনেক দেশের কোটিপতিরা তাদের দেশ ছেড়ে অন্য দেশে বসতি স্থাপনকে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছেন। এই তালিকায় প্রথমে রয়েছে রাশিয়া, দ্বিতীয়তে চীন, এরপরই রয়েছে ভারত।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২২ সালে দেশান্তরিত কোটিপতির সংখ্যা সবচেয়ে বেশি রাশিয়ার, যার সংখ্যা ১৫ হাজার। একই সময়ে ১০ হাজার কোটিপতি চীন থেকে দেশান্তরিত হয়েছেন। অন্যদিকে, ৮ হাজার কোটিপতি ভারত থেকে অন্য দেশে পাড়ি জমিয়েছেন। দেশান্তরিত হওয়া দেশের তালিকায় ইউক্রেন, ব্রিটেনের মতো দেশও রয়েছে। যুদ্ধ-বিধ্বস্ত ইউক্রেন রয়েছে পঞ্চম স্থানে এবং ব্রিটেন এই তালিকায় ৭ম স্থানে আছে।

এদিকে, যেসব দেশগুলোতে এই ধনীরা তাদের নতুন আবাস খুঁজছেন, এর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত, সিঙ্গাপুর ও অস্ট্রেলিয়া। প্রতিবেদনে প্রকাশ, দেশ ছেড়ে যাওয়া কোটিপতিদের মধ্যে ৪ হাজার জন সংযুক্ত আরব আমিরাতে, ৩ হাজার ৫০০ জন অস্ট্রেলিয়ায় এবং ২ হাজার ৮০০ জন সিঙ্গাপুরে পৌঁছেছেন। এছাড়াও ইসরায়েল, সুইজারল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, পর্তুগাল, গ্রীস, কানাডা এবং নিউজিল্যান্ডে পাড়ি জমাচ্ছেন কোটিপতিরা। কিছু কোটিপতিরা ইউরোপ এবং বিশেষ করে ভূমধ্যসাগরীয় দেশগুলো যেমন পর্তুগাল, মাল্টা এবং গ্রিসের দিকে ঝুঁকেছে।

প্রতিবেদনে কোটিপতিদের এই অভিবাসনের কারনও উলেখ্য করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে পশ্চিমাদের নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ে রাশিয়া, মূলত একারনেই দেশ ছাড়ছেন উচ্চ সম্পদশালীরা। তবে ভারতীয়দের অভিবাসনের কারণ হলো, উচ্চতর জীবনযাত্রার আকাঙ্ক্ষা, উন্নত শিক্ষাগত এবং স্বাস্থ্য সুবিধা এবং এছাড়াও কঠোর ট্যাক্স রেসিডেন্সি নিয়ম এবং ভারতে ব্যক্তিগত করের উচ্চ হার থেকে দূরে থাকা।

সূত্র: টেলিগ্রাফ ইন্ডিয়া

বাংলাদেশ জার্নাল/এমআর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত