ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯ আপডেট : ২১ মিনিট আগে
শিরোনাম

আল কায়েদা, পাকিস্তানি তালেবানের ৪ নেতাকে বৈশ্বিক সন্ত্রাসী ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮:৫৩  
আপডেট :
 ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৯:৫২

আল কায়েদা, পাকিস্তানি তালেবানের ৪ নেতাকে বৈশ্বিক সন্ত্রাসী ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের
প্রতিকী ছবি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আল-কায়েদা এবং পাকিস্তানি তালেবান গোষ্ঠীর চার নেতাকে বৈশ্বিক সন্ত্রাসী হিসাবে ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। একই সঙ্গে এই সন্ত্রাসীরা যাতে আফগানিস্তানে দায়মুক্তি ভাবে কোনও ধরনের সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করতে না পারে সেই বিষয়ে নিশ্চিত করবে বাইডেন প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার যাদের বৈশ্বিক সন্ত্রাসী তালিকায় যোগ করা হয়েছে তারা হলেন, ভারতীয় উপমহাদেশে আল-কায়েদার (একিউআইএস) আমির ওসামা মেহমুদ, ডেপুটি আমির আতিফ ইয়াহিয়া ঘোরি এবং গোষ্ঠীর নিয়োগ শাখার প্রধান মুহাম্মদ মারুফ। এছাড়াও রয়েছেন তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান (টিটিপি) এর ডেপুটি আমির কারি আমজাদ।

এ বিয়য়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেন, তাদের ক্রিয়াকলাপের ফলস্বরূপ, এই চার সন্ত্রসী নেতাদের সমস্ত মার্কিন সম্পত্তি এবং স্বার্থ অবরুদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়াও সমস্ত মার্কিন ব্যক্তিদের তাদের সাথে কোনও লেনদেনে জড়িত হতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে ৷

ব্লিঙ্কেন বলেন, সন্ত্রাসীরা যাতে আফগানিস্তানকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের প্ল্যাটফর্ম হিসাবে ব্যবহার না করে তা নিশ্চিত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ যুক্তরাষ্ট্র। এই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করার জন্য ভবিষ্যতেও আমরা সমস্ত প্রাসঙ্গিক সরঞ্জাম ব্যবহার করতে থাকব।

তিনি আরও বলেন, বৃহস্পতিবারের সিদ্ধান্ত আবারও প্রমাণ করে, আমরা আফগানিস্তানে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসীদের বিশৃঙ্খলা না করতে পারে সেদিকে আমাদের নজর রয়েছে।

উল্লেখ্য, সেপ্টেম্বর ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত, একিউআইএস হল একটি ইসলামী সন্ত্রাসী সংগঠন যার লক্ষ্য একটি ইসলামিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য পাকিস্তান, আফগানিস্তান, ভারত, মায়ানমার এবং বাংলাদেশের সরকারের সাথে লড়াই করা।

অন্যদিকে টিটিপি, সাধারণত পাকিস্তানি তালেবান নামে পরিচিত, আফগান-পাকিস্তান সীমান্তে কর্মরত বিভিন্ন ইসলামপন্থী সশস্ত্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর একটি ছাতা সংগঠন। ২০০৭ সালে গঠিত গোষ্ঠীটি আফগান তালেবানদের সাথে একটি সাধারণ মতাদর্শ ভাগ করে নেয় এবং ২০০১- ২০২১ যুদ্ধে তাদের সহায়তা করে।

সূত্র: এনডিটিভি

বাংলাদেশ জার্নাল/এমআর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত