হাত বাড়ালেই জলপ্রপাত মেঘ

প্রকাশ : ০৪ আগস্ট ২০২২, ১৮:৩৮ | অনলাইন সংস্করণ

  জার্নাল ডেস্ক

ছবি: আনন্দবাজার

নৈসর্গিক সৌন্দর্যে মুগ্ধ হতে চান? তেমনই একটি জায়গার সন্ধান সদ্য পাওয়া গেছে। চেষ্টা চলছে এলাকাটিকে ভারতের পশ্চিবঙ্গের পাহাড় পর্যটন-মানচিত্রে নিয়ে আসার। স্থানীয় বাসিন্দা সিলভেস্টার লেপচা ইতিমধ্যেই একটি হোমস্টে শুরু করেছেন সেখানে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ছবি ছড়িয়ে পড়তেই ভ্রমণপিপাসুরা জায়গাটির খোঁজখবর নিতে শুরু করেছেন। 

জায়গাটি হলো কালিম্পং জেলার লাভা থেকে পেডং গ্রামে যাওয়ার পথে ১০ কিলোমিটার যাওয়ার পরে রাস্তার ডানদিকের পথ ধরে অনন্য সুন্দর দুকা ভ্যালি।

লাভা থেকে পেডং যাওয়ার পথে তন্দ্রাবং অঞ্চলে অবস্থিত মইরঁগাঁও হয়ে এই দুকা ভ্যালি যাওয়া যায়। কালো পিচের মসৃণ রাস্তা। যেতে যেতে রাস্তায় পাবেন দুকা জলপ্রপাত এবং নাম-না-জানা কত সব গাছ।

দুকায় রয়েছে লেপচা জাতির ঐতিহাসিক নানা নিদর্শন। চারদিক থেকে নৈসর্গিক দৃশ্য যেন ঘিরে ধরেছে উপত্যকাটিকে। পূর্ব সিকিমের জুলুক যাওয়ার পথে জিগজ্যাগ রাস্তা, রিশপ পাহাড়, মইরঁগাঁও--  অনেককিছুরই দেখা মিলবে এই পথে।

পাশাপাশি চোখে পড়বে ঝুম চাষের অপূর্ব সব দৃশ্য। পাহাড়ি পরিবেশে শোনা যাবে ঝিঁঝিঁপোকার ডাক। মনোরম সব দৃশ্য দেখতে ইতিমধ্যেই পর্যটকেরা এক-পা দু-পা ফেলতে শুরু করেছেন এই গ্রামে।

সিলভেস্টার লেপচা জানান, তিনিই প্রথম হোমস্টে শুরু করেন এখানে। ভ্রমণপিপাসুদের আশীর্বাদে অনেকেই তার এখানে আসতে শুরু করেছেন।

  

উত্তরবঙ্গ বা দক্ষিণবঙ্গে যখন প্রচণ্ড গরম, তখন আপনার চারিদিকে ঠান্ডা ও মনোরম এই প্রাকৃতিক পরিবেশ পেতে আসতেই পারেন দুকা ভ্যালি। নিউমাল থেকে সড়কপথে দুকা ভ্যালির দূরত্ব মাত্র ৩৪ কিলোমিটার। খাওয়া-দাওয়া এবং হোমস্টের ভাড়া নাগালের মধ্যেই।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএস