ঢাকা, রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ আপডেট : ৮ মিনিট আগে

খালেদাকে হত্যা করাই সরকারের পরিকল্পনা

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৪৭  
আপডেট :
 ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৫১

খালেদাকে হত্যা করাই সরকারের পরিকল্পনা
নিজস্ব প্রতিবেদক

খালেদা জিয়াকে আটক রেখে তাকে তিলে তিলে হত্যা করাই সরকারের পরিকল্পনা বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচে ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে ‘খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায়’ আয়োজিত এক দোয়া মাহফিলে এ অভিযোগ করেন তিনি।

খালেদা জিয়ার উন্নত মানের চিকিৎসা দরকার জানিয়ে তিনি বলেন, এই সরকার সেটা তো দেবে না। তাকে তিলে তিলে মেরে ফেলা সরকারের লক্ষ্য। সেই লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্যই মাত্র দুই কোটি টাকার একটি মিথ্যা মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। দেশবাসী জানে, ট্রাস্টের টাকা ট্রাস্টেই আছে। সেই দুই কোটি টাকা ব্যাংকে এখন ৮ কোটি টাকা হয়ে গেছে। সেই টাকার তিনি নিজেও খাননি এবং বিদেশেও পাচার করেননি।

সরকারের উদ্দেশ্যে করে মির্জ আব্বাস বলেন, আজকে আপনাদের হাজার হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি ধরা পড়ছে। আপনাদের এক মন্ত্রী বলছেন, চার হাজার কোটি টাকা না কি কোনো বিষয় না। সেই জায়গায় মাত্র দুই কোটি টাকার জন্য বেগম খালেদা জিয়া জেল খাটবেন, এটা কোনো কথা হতে পারে না। আসল কথা হলো, উনাকে আটকে রেখে উনাকে তিলে তিলে হত্যা করা। এটাই হচ্ছে, এই সরকারের পরিকল্পনা।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া একদিন রাতে হঠাৎ ফোন দিয়েছিলেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া জানতে চাইলেন, আব্বাস কি করছেন? আমি বললাম, ম্যাডাম ঘুমানোর প্রস্তুতি নিচ্ছি। তিনি আমাকে বললেন ঘুমালে তো চলবে না। আপনি কিছু শোনেননি? আমি বললাম না ম্যাডাম। তিনি বললেন, ভারতের বাবরি মসজিদ ভাঙ্গা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকার গিয়ে মন্দিরগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন। তিনি তখন খুব সুন্দরভাবে আমাদের দেশের মুসলমানদের ধৈর্য ধারন করতে বলেছেন। এতেই প্রমাণিত হয় যে, বিএনপি অত্যন্ত উচ্চ পর্যায়ের একটি অসাম্প্রদায়িক দল এবং খালেদা জিয়া অত্যন্ত উচ্চ মানসিকতার একজন নেত্রী।

আব্বাস বলেন, দেশে কোন বিচার ব্যবস্থা নাই। আছে শুধু পুলিশ ও কোর্ট। এগুলো দিয়েই সরকার টিকে আছে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পরিস্থিতি তুলে ধরে তিনি বলেন, আমি এখানে গাড়ি থেকে নামার সময় দেখলাম অনেক পুলিশ। আরে ভাই কেন? এটা কি জঙ্গি অফিস? এটাতো বিএনপি কার্যালয়। স্বেচ্ছাসেবক দল আয়োজিত একটি দোয়া মাহফিল হবে। এখানেও আপনার আমাদেরকে বসতে দিবেন না।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ফখরুল ইসলাম রবিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, স্বেচ্ছাসেবেক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএম/কেএস

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত