ঢাকা, রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ৯ কার্তিক ১৪২৮ আপডেট : ২ মিনিট আগে

দেশের প্রথম ক্রিকেট গেমিং অ্যাপ ‘হাউজ্যাট- মুশি দ্য ডিপেন্ডাবল’

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:০৮

দেশের প্রথম ক্রিকেট গেমিং অ্যাপ ‘হাউজ্যাট- মুশি দ্য ডিপেন্ডাবল’
ছবি- নিজস্ব
নিজস্ব প্রতিবেদক

তাক লাগানো খবরটি জানালেন উদ্যোক্তা সাজেদুর রহমান। বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো তৈরি করেছেন ক্রিকেট গেমিং অ্যাপ ‘হাউজ্যাট- মুশি দ্য ডিপেন্ডেবল’। আর কাজটি করছেন পাঁচ মাসেরও কম সময়ে, মাত্র আটজন প্রোগ্রামার দিয়ে।

এরিমধ্যে গেমিং অ্যাপের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য তারকা মুশফিকুর রহিম। হাউজাট গেমিং অ্যাপে নিজের অ্যাভাটারে ব্যাট হাতে মাঠে নামবেন মুশফিক, খেলবেন ভার্চুয়াল ময়দানে।

আর এই বিরাট কর্মযজ্ঞের খবর পৌঁছে গেছে আইসিটি প্রতিমন্ত্রীর কাছে। দেশের গেমিং ইন্ডাস্ট্রিতে নতুন আশাবাদ দেখছেন তিনি।

যেভাবে তৈরি হলো গেমিং অ্যাপটি

উদ্যোক্তা কাজী সাজেদুর রহমানের পড়াশোনা মূলত কম্পিউটার বিজ্ঞানে। কিন্তু প্রবল আগ্রহ খেলাধুলায়। বিপরীতমুখী দুটো বিষয়কে পেশাগত জীবনে এক করতে চেয়েছেন বহুবার।

সেই লক্ষ্যে তৈরি করেছেন কেপিসি এন্টারপ্রাইজ নামের প্রতিষ্ঠানও। কিন্তু প্রতিবারই সেটা না হয়ে তৈরি হয়ে গেছে নতুন কিছু। কখনো কাগজের গ্লাস তৈরি করেছেন, সেটি আবার অনলাইন-অফলাইনে সাড়াও ফেলেছে।

কখনো এই শহরের মানুষের জন্য গ্রামীণ স্বাদের চুঁইঝাল মাংস পৌঁছে দিয়েছেন ঘরে ঘরে; সেখানেও তৈরি হয়েছে নতুন বাজার। এমন একাধিক ব্যতিক্রমী ধারণা তাঁকে এনে দিয়েছে জাতীয় পর্যায় থেকে উদ্যোক্তা সম্মাননা পুরস্কারটিও। আর গণমাধ্যমও সেসব সাফল্যের খবর দেখিয়েছে বড় আকারে। কিন্তু তাতে কি? আক্ষেপের জায়গাটি যে তখনও ছিলো।

অ্যাপটির উদ্যোক্তা কাজী সাজেদুর রহমান

পড়াশোনার বিষয়ের সাথে খেলাকে জুড়ে দেওয়ার ভাবনাটি নিয়ে কাজ করতে করতে হঠাৎ পেয়ে গেলেন আইডিয়া। সামনে যেহেতু টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ। মাঠে থাকবে বাংলাদেশ দল।যদি এমন করা যায় যে পুরো বাংলাদেশ টিমের সাথে সমর্থকরাও থাকবে ভার্চুয়াল দুনিয়ায়, নিজের পছন্দের ক্রিকেটারের অবয়ব নিয়ে জার্সি পরে নেমে যাবে মাঠে, কেমন হয়?

আইডিয়া পেটেন্ট করে কাজে নেমে পড়লেন সাজেদুর রহমান। প্রথমেই চুক্তি করলেন আরেকটি আইটি প্রতিষ্ঠান টারটেল সলিউশনসের সাথে।

ওদিকে ছেলেবেলা থেকেই কাছের মানুষ মুশফিকের সঙ্গেও সাথেও শেয়ার করলেন আইডিয়াটা। মুশফিকের উচ্ছ্বাস আর উৎসাহে কাজের গতি বেড়ে গেল কয়েকগুণ।

আট জন প্রোগ্রামারের রাত দিনের পরিশ্রমে ভর করে পাঁচ মাসের কম সময়ে তৈরি হয়ে গেল গেমিং অ্যাপ ‘হাউজ্যাট- মুশি দ্য ডিপেন্ডেবল’।

যা আছে এই গেমে

মুশফিকুর রহিমের লিজেন্ডারি ইমেজকে প্রাধান্য দিয়েই গেমিং অ্যাপটি তৈরি। সে হিসেবে বলা যায় তিনিই এর ব্র্যান্ড এম্বাসেডর।

লোগো থেকে জার্সি, মাঠ থেকে ড্রেসিংরুম সবখানেই পাওয়া যাবে হুবহু বাস্তবের মুশফিকের উপস্থিতি। সাথে আছে হাইডেফিনেশন গ্রাফিক্সে তৈরি মুশফিকের নিখুঁত অ্যাভাটার।

যিনি গেমটি ডাউনলোড করলেন, তিনি ভার্চুয়াল মাঠে নিজেই হয়ে উঠবেন মুশফিকুর রহিম। ক্রিকেটের প্রায় সবধরনের ব্যাটিং স্ট্রোক এবং বোলিং অ্যাকশান এখানে যুক্ত করা হয়েছে। তিনটি গুরুত্বপূর্ণ মোডিউল এখানে আছে। জেনারেল মোড, মাল্টিপ্লেয়ার মোড এবং লিজেন্ডারি মোড।

জেনারেল মোডের বৈশিষ্ট্য হল এখানে একজন ইউজার বেছে নিতে পারবেন প্রতিপক্ষ দেশ; যার বিপক্ষে বাংলাদেশের হয়ে খেলবেন তিনি। মাঠে নামবেন মুশফিক হয়ে।

এক্ষেত্রে তিনি বেছে নিতে পারেন পছন্দের টুর্নামেন্ট, খেলার মাঠ। আছে দিন-রাতের ম্যাচ, আবহাওয়া, টস, রিভিউ সিস্টেম, থার্ড আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত এবং ধারাভাষ্যকারের বর্ণনা।

সব মিলে শতাধিক অপশন আর ফাংশন। ঘরে বসে মাঠের অনুভূতি দেবার জন্য যুক্ত করা হয়েছে হাইডেফিনেশন গ্রাফিক্স।

গেমটির মাল্টিপ্লেয়ার মোডে লাইভ স্ট্রিমিংয়ের সুযোগ আছে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে অনলাইনে থাকা বন্ধুদের নিয়ে সেখানে চার বা আট জনের টিম তৈরি করা যাবে।

তারা নিজেদের মধ্যে ফ্রেন্ডশিপ ম্যাচ বা টুর্নামেন্ট খেলতে পারবে এবং চাইলে সেটা সরাসরি নিজের ফেসবুক বা ইউটিউব থেকে লাইভ স্ট্রিমিং করতে পারবে।

তবে হাউজ্যাট-মুশি দ্য ডিপেন্ডাবলের সবচেয়ে আকর্ষনীয় মোড হলো লিজেন্ডারি মোড। তারকা মুশফিকুর রহিম তার ক্যারিয়ারে এমন অনেক ম্যাচ খেলেছেন যেখানে তিনি প্রায় হেরে যাওয়া ম্যাচটি একাই জিতিয়ে এনেছেন।

লিজেন্ডারি মোডে একজন ইউজার এমন একটি জায়গা থেকে খেলা শুরু করবেন যেখান থেকে জিতে আসা বেশ কঠিন। কঠিন সেই চ্যালেঞ্জটি মাথায় নিয়ে তাকে মুশফিক হয়ে মাঠে নামতে হবে। রিয়েল টাইম ক্রিকেটের সাথে মিল রেখেই ভার্চুয়াল জগতের জন্য তৈরি এই গেমটি খেলা যাবে অনলাইন-অফলাইন দুই মাধ্যমেই।

হাউজ্যাট- মুশি দ্য ডিপেন্ডাবল- এর উদ্যোক্তা সাজেদুর রহমান জানান, মানুষের আগ্রহ সম্পর্কে ধারণা পেতে এর একটি বেটা ভার্সন গুগল অ্যাপ স্টোরে আপলোড করা হয়। ফলাফল, মাত্র ২৪ঘন্টায় এক লক্ষ ৬০ হাজারের বেশি সাবস্ক্রিপশন জড়ো হলো। এক সপ্তাহে ৫০ লক্ষ বার খেলা হয়েছে গেমটি।

কেন মুশফিকুর রহিম?

হাউজ্যাট- মুশি দ্য ডিপেন্ডেবল- এর উদ্যোক্তা সাজেদুর রহমান জানান, বেশ কয়েকটি কারণে মুশফিকুর রহিমের এখানে যুক্ত হওয়া।

প্রথমত, সম্পর্কটি বহু পুরোনো আর এই গেমটি নিয়ে মুশফিকের আগ্রহ। জিম্বাবুয়ে সফরের ব্যস্ততার মাঝেও তিনি এমওইউ স্বাক্ষর করে দেশে পাঠিয়ে দেন।

এছাড়া মুশফিকের এক কোটি ৩০ লাখের বেশি ফেসবুক ফলোয়ার, ১৪ লাখের বেশী টুইটার ও ১৩ লাখের বেশি ইস্টাগ্রাম ফলোয়ার গেমটাকে পৌঁছে দেবে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে।

পাশাপাশি এই গেমিং অ্যাপের ব্যবসায়ীক লভ্যাংশ যাবে মুশফিকুর রহিম ফাউন্ডেশনেও। সাথে সম্ভব হবে বাংলাদেশের ক্রিকেটের সাথে বিশ্বকে আরো বেশি সম্পৃক্ত করা।

বাইরের দেশে লিজেন্ডদের নিয়ে একাধিক গেম আছে, যেমন শচীন টেন্ডুলকারকে নিয়ে শচীন সাগা, ব্রাইন লারাকে নিয়ে আছে ব্রাইন লারা ক্রিকেট, অস্ট্রেলিয়াতে ম্যাথু হেডেইনকে নিয়েও আছে গেমিং অ্যাপ।

সেই বিবেচনায় বাংলাদেশেও ক্রিকেটের লিজেন্ড এরইমধ্যে তৈরি হয়েছে,যাদের মধ্যে মুশফিকুর রহিমও একজন। গেমিং অ্যাপের সাথে এই ক্রিকেটারের যুক্ত হওয়ার এটাও একটা বড় কারণ।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া

হাউজ্যাট-মুশি দ্য ডিপেন্ডেবল- গেমিং অ্যাপটির খবর পৌঁছে গেছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রীর কাছেও। কথা দেন নিজেই এই গেমিং অ্যাপটির উদ্বোধনে থাকবেন।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন,অল্পদিনের মধ্যেই বাংলাদেশে বিলিয়ন ডলারের গেমিং -এর বাজার তৈরি হবে এবং লক্ষাধিক তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান হবে।

এজন্য এরইমধ্যে আইসিটি ডিভিশন দেশের ৪০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ল্যাব স্থাপনের পাশাপাশি প্রশিক্ষণ ও আর্থিক সহায়তাও দিচ্ছে।

দেশে এখন চাকুরি খোঁজা প্রজন্ম থেকে চাকুরী দাতা প্রজন্ম তৈরি হচ্ছে জানিয়ে পলক বলেন, ‘সব ক্ষেত্রেই উদ্ভাবন আর উদ্ভাবনী ধারণা দিয়ে এই শিল্পকে যে জায়গায় নিয়ে যাচ্ছেন উদ্যোক্তারা, সেটা আসলেই অনুপ্রেরণাদায়ক’।

তরুণদের উপর ভর করেই মাত্র ১২ বছরে শ্রম-নির্ভর অর্থনীতি থেকে দেশ এখন মেধা ও প্রযুক্তি নির্ভর অর্থনীতির জগতে প্রবেশ করেছে বলে মনে করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী।

আনুষ্ঠানিক যাত্রা

বিশ্বকাপ খেলতে দেশ ছাড়বেন ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম। তবে যাবার আগেই উদ্বোধনের কাজটি শেষ করতে চান তিনি।

১ অক্টোবর হাউজ্যাট-মুশি দ্য ডিপেন্ডেবল” এর যাত্রা শুরু হচ্ছে। গেমিং অ্যাপটির উদ্বোধনে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এবং মুশফিকুর রহিমের পাশাপাশি থাকবেন বাংলাদেশ ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট আমিনুল হাকিম।

থাকবেন গেমিং অ্যাপটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠান কেপিসি এন্টারপ্রাইজের চেয়ারম্যান কাজী সাজেদুর রহমান এবং টারটেইল সলিউশনসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা খান রিফাত সালাম।

গেমিং অ্যাপটির নির্মাতার জানান, বাইরের দেশের কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সাথে কথা চলছে; খুব দ্রুতই হাউজ্যাট-মুশি দ্য ডিপেন্ডেবলের সাথে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি বা ভিআর মোড সংযোজন করা হবে। তখন এটি আরো উপভোগ্য হয়ে উঠবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/একে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত