ঢাকা, সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯ আপডেট : ৩ মিনিট আগে

কোচিং-অধিনায়কত্ব একসাথে করতে চান না সাকিব

  স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশ : ২০ জুন ২০২২, ০৯:১১

কোচিং-অধিনায়কত্ব একসাথে করতে চান না সাকিব
ছবি- সংগৃহীত
স্পোর্টস ডেস্ক

অ্যান্টিগা টেস্টের চতুর্থ দিন বাংলাদেশ কতসময় আটকে রাখতে পারে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে সেটাই ছিলো দেখার বিষয়। টাইগার বোলাররা পারলেন মাত্র ৭ ওভার। আর তাতেই ৭ উইকেটের বড় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়লো উইন্ডিজরা। চতুর্থ ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয়ের জন্য ৮৪ রানের টার্গেট দিয়েছিলো বাংলাদেশ।

তৃতীয় দিন বিকেলে ব্যাটিংয়ে নেমে ৯ রানেই ৩ উইকেট হারানোর পর কিছুটা সম্ভাবনা জাগিয়েছিলো বাংলাদেশ। আসলে ঠিক সম্ভাবনা না, সম্ভাবনার আশা বলা যায়। টাইগারদের পুঁজি যে একেবারেই কম। প্রথম ইনিংসে টাইগারদের ব্যাটিং ব্যর্থতা না হলে যে আরেকটু বড় টার্গেট দেয়ায় যেত। এই আফসোসেই পুড়তে হয়েছে তৃতীয় দিন বিকেলে।

তবে চতুর্থ দিন সকালে ব্যাটিংয়ে নেমে সেই আফসোসের অবশিষ্ট আর রাখলো না ক্যারিবিয়ানরা। আগের দিনের ওই তিন উইকেট হারানোই শেষ, চতুর্থ দিন মাত্র ৭ ওভারেই খেলা শেষ করে দিলো আগেরদিনের দুই অপরাজিত ব্যাটাসম্যান জন ক্যাম্পবেল আর জারমেইন ব্ল্যাকউড।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ১১ ব্যাটসম্যানের ছয় জনই আউট হয়েছেন শূন্য রানে। দ্বিতীয় ইনিংসে শূন্যের মালা না থাকলেও ২৫ রানের কোটা পার করতে পারেননি টাইগারদের ৮ ব্যাটসম্যান। ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থ হতে থাকায় এতদিন ব্যাটসম্যানদের মানসিক সমস্যার কথা বলা হতো বেশি। অ্যান্টিগা টেস্টে হারের পর অধিনায়ক সাকিব আল হাসান জানালেন, সমস্যা রয়েছে ব্যাটসম্যানদের টেকনিকেও।

ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক সাকিব বলেন, ‘টেকনিক্যালি অনেক সমস্যা আছে। টেকনিক্যালি সাউন্ড এমন খেলোয়াড় খুব বেশি আছে আমাদের, সেটি মনে হয় না। আমাদের দলের যারা আছে প্রত্যেকেরই টেকনিক্যাল সমস্যা রয়েছে। তাদের উপায় খুঁজে বের করতে হবে কীভাবে রান করতে হবে, ক্রিজে থাকতে হবে। এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

সাকিব অভিজ্ঞ ক্রিকেটার, টেকনিক্যালি কার কোথায় সমস্যা অভিজ্ঞতার জেরে সেটি বেশ ভালোভাবেই ধরতে পারছেন অধিনায়ক। তবে একদিকে নেতৃত্ব সামলে আবার অন্যদের শুধরানোর জন্য কোচের দায়িত্ব পালনেও আপত্তি রয়েছে সাকিবের। একই সঙ্গে অধিনায়ক আর কোচের ভূমিকা পালন করার কোনো ইচ্ছেই নেই তার।

সাকিবের ভাষায়, ‘এটা তো আসলে আমার খুব বেশি আলোচনার বিষয় না। কোচের আলোচনা করার বিষয়। এখন আমি যদি কোচিংও করি অধিনায়কত্বও করি তাহলে তো সমস্যা। আমার কাজ যতটুকু ততটুকুতে থাকা আমার মনে হয় বেটার। আমার দায়িত্ব যতটুকু ততটুকু পালন করার চেষ্টা করব। বাকি যার যে কাজ তা তাদের জায়গা থেকে করলে সবার জন্যই কাজটা সহজ হবে।’

টাইগার অধিয়ান্যক আরও বলেন, ‘এটা যার যার ব্যক্তিগতভাবে আনা সম্ভব। এটা কাউকে বলে দিয়ে কাজ হবে বলেও আমার মনে হয় না। তাই এই জিনিস্টা সকলের ব্যক্তিগতভাবেই দায়িত্ব নিতে হবে যে সে কীভাবে রানে ফিরতে পারবে বা ক্রিজে বেশি সময় কাটাতে পারবে।’

ব্যর্থতার সমালোচনা যেমন করেছেন তেমন সাফল্য পাওয়ার মন খলো প্রশংসাও করেছে বাংলাদেশের অধিনায়ক। নুরুল হাসান সোহানকে নিয়ে নিজের জুটিটা বাংলাদেশকে লজ্জা থেকে বাঁচিয়েছে।

সোহানকে নিয়ে সাকিবের বক্তব্য, ‘এখান থেকে নেয়ার অনেক কিছুই আছে। নুরুল চাপে ছিল। সে নিজেকে যেভাবে প্রকাশ করেছে এটা ভালো ব্যাপার। অন্য ব্যাটাররা একই অ্যাপ্রোচ নিতে পারে এবং পরের ম্যাচে ভালো ক্রিকেট খেলতে পারে।’

বাংলাদেশ জার্নাল/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত