ঢাকা, সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯ আপডেট : ১০ মিনিট আগে

ক্রিকেটারদের খুব বেশি দোষ দেখেন না সাকিব

  স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশ : ২৮ জুন ২০২২, ১১:৪৯

ক্রিকেটারদের খুব বেশি দোষ দেখেন না সাকিব
ছবি- সংগৃহীত
স্পোর্টস ডেস্ক

টেস্টের ব্যর্থতা যেন পিছু ছাড়ছে না টাইগারদের। গত জানুয়ারিতে মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্ট বাদ দিলে টেস্টে বাংলাদশের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সকে বেশ যাচ্ছেতাই বলাই যায়। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে হেরে এসে দেশের মাটিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও হার। ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে গিয়েও কপাল ফিরলো না টাইগারদের। ২-০ ব্যবধানে হেরে হতে হলো হোয়াইট ওয়াশ।

সেন্ট লুসিয়া টেস্টে নুরুল হাসান সোহানের কৃতিত্বে ইনিংস হার এড়ালেও একদিন বাকি থাকতেই ১০ উইকেটের হারে ধবল ধোলাইয়ের লজ্জাতেই পড়তে হয়েছে সাকিব আল হাসানের দলকে।

টেস্টের প্রতি ক্রিকেটারদের অমোনোযোগিতাকেই বাংলাদেশের টেস্টে ব্যর্থতার অন্যতম কারণ হিসেবে দেখা হয়। বেশিরভাগ টাইগার ক্রিকেটারই ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে বেশি জোর দেন, এমন কথা শোনা যায় প্রায়ই।

তবে উইন্ডিজদের বিপক্ষে টেস্টের ব্যর্থতার পর অবশ্য অধিনায়ক সাকিব দাঁড়ালেন দলের খেলোয়াড়দের ঢাল হয়েই। সেন্ট লুসিয়ায় হারের পর সংবাদ সম্মেলনে টেস্টে অনাগ্রহতার অভিযোগ পুরোপুরি উড়িয়ে না দিলেও ক্রিকেটারদের পক্ষ নিয়েই সাকিব বলেন, টেস্টে আগ্রহ না থাকা বা কম থাকার দায় শুধুমাত্র খেলোয়াড়দের একার নয়। বরং এ প্রসঙ্গে পাল্টা প্রশ্নে তিনি জিজ্ঞেস করেছেন, বাংলাদেশে টেস্ট ক্রিকেট মূলত দেখেন কতজন মানুষ?

বাংলাদেশের টেস্ট সংস্কৃতি নিয়েও প্রশ্ন তোলেন সাকিব। বলেন, ‘এখানে খেলোয়াড়দের খুব বেশি দোষ দেওয়া ঠিক হবে না। শুধু খেলোয়াড়দের দোষ দিলে হবে না। আমাদের দেশের সিস্টেমটাই এমন। আপনি কবে দেখছেন বাংলাদেশে ৩০ হাজার দর্শক টেস্ট ম্যাচ দেখছে বা ২৫ হাজার দর্শক মাঠে এসেছে টেস্ট দেখতে?’

সাকিবের মতে, দেশের ক্রিকেটের সিস্টেমেই টেস্ট খুব বেশি আলোচিত হয় না। সে কারণেই দেশে টেস্ট ম্যাচ হলেও বেশিরভাগ সময়ই ফাঁকা থাকে পুরো গ্যালারি।

ইংল্যান্ডের টেস্ট ম্যাচের উদাহরণ দ্যে সাকিব বলেন, ‘ইংল্যান্ডে তো প্রতি ম্যাচে (টেস্ট) এমন দর্শক থাকে। টেস্টের সংস্কৃতিটাই আমাদের দেশে ছিল না কখনো, এখনো নেই।’

হতাশার সাথে অবশ্য আশার কথাও শুনিয়েছেন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক। তার মতে, ‘টেস্ট সংস্কৃতি নেই বলে যে হবে না, সেটা না। এই জিনিসটা পরিবর্তন করা আমাদের বড় দায়িত্ব। সবাই মিলে যদি পরিকল্পনা করে আগানো যায়, হয়তো অনেক কিছু সম্ভব হবে। নইলে আসলে খুব বেশি দূর আগানো সম্ভব হবে না।’

সাকিব আরও বলেন, ‘আমরা যে টেস্ট ক্রিকেটকে খুব বেশি মূল্যায়ন করি, সেটিও কিন্তু নয়। হ্যা, হতে পারে আমরা ফলাফল ভালো করিনি, এ জন্য মূল্যায়ন করাও হয়নি। তবে একটার সঙ্গে আরেকটার সম্পর্ক আছে। একটার সঙ্গে আরেকটাকে সম্পৃক্ত করতে হবে। তাহলেই ভালো কিছু সম্ভব হবে।’

বাংলাদেশ জার্নাল/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত