ঢাকা, শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ৩৬ মিনিট আগে
শিরোনাম

আমিরাতের সঙ্গে বাংলাদেশের শ্বাসরুদ্ধকর জয়

  ক্রীড়া ডেস্ক

প্রকাশ : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০:০৭  
আপডেট :
 ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০:৪৬

আমিরাতের সঙ্গে বাংলাদেশের শ্বাসরুদ্ধকর জয়
আফিফ হোসেন। ছবি: সংগৃহীত
ক্রীড়া ডেস্ক

বিশ্বকাপের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে আরব আমিরাতের সঙ্গে শ্বাসরুদ্ধকর জয় পেলো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। ৭ রানের জয় দিয়ে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টিতে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেলো সফরকারীরা।

আমিরাতের বিপক্ষে শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টসে হারে বাংলাদেশ। আমিরাত অধিনায়ক রিজওয়ান ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে পাঠায়।

বাংলাদেশ ব্যাট করতে নেমে ৪৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। টপ অর্ডাররা কিছুই করতে পারেনি। দুই মেকশিফট ওপেনার মিরাজ, সাব্বির রহমান এবং তিন নম্বরে নামা লিটন দাস পুরোপুরি ব্যর্থতার পরিচয় দিলেন।

ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই কোনো রান না করে আউট হয়ে যান সাব্বির। মিরাজ করেছিলেন ১৪ বলে ১২ রান। এরপর ৮ বলে ১৩ রান করে আউট হয়ে যান লিটন কুমার দাস।

ব্যাটিং ব্যর্থতার ধারাবাহিকতা দেখালেন ইয়াসির আলী রাব্বিও। ৭বল খেলেছেন, করেছেন কেবল ৪ রান। এরপরই মেইয়াপ্পনের বলে বোল্ড হয়ে যান রাব্বি। এর পর আফিফ হোসেন ধ্রুব আর নুরুল হাসান সোহানের জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ।

শেষ পর্যন্ত আফিফ হোসেন ৫৫ বলে অপরাজিত থাকলেন ৭৭ রানে। ৭টি বাউন্ডারির সঙ্গে ৩টি ছক্কার মার মেরেছেন তিনি। অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান শেষ মুহূর্তে ঝড় তুলে ২৫ বলে অপরাজিত ছিলেন ৩৫ রানে। ২টি করে বাউন্ডারি এবং ছক্কার মার মেরেছেন তিনি।

৯ ওভারের জুটির ওপর ভর করেই আরব আমিরাতের সামনে চ্যালেঞ্জিং স্কোর দাঁড় করায় বাংলাদেশ। এই দুই ব্যাটার ৯ ওভারে গড়েছেন ৮১ রানের অনবদ্য জুটি। তাতেই স্বাগতিকদের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৫৯ রানের।

বাংলাদেশকে জবাব দিতে নেমে শুরুটা মন্দ হয়নি আরব আমিরাতের। তাদের ২৭ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে মোহাম্মদ ওয়াসেম রান আউট হলে। ১৫ বলে ১৫ রান করেন এই ব্যাটার। এরপর আরিয়ান লারকাকে সঙ্গে নিয়ে ৩৯ রানের জুটি গড়েন চিরাগ সুরি।

১ উইকেট হারিয়ে ৬৬ রান করে বাংলাদেশের মনে বেশ ভয়ই ধরিয়ে দিয়েছিল সংযুক্ত আরব আমিরাত। ৭ চারে ২৪ বলে ৩৯ রান করা চিরাগ সুরিকে আউট করে বাংলাদেশকে ম্যাচে ফেরান মেহেদী হাসান মিরাজ। এরপর ১৫ বলে ১৯ রান করা আরিয়ান লারকাকে শরিফুল ইসলামের ক্যাচ বানান তিনি।

ভেঙে যায় আরব আমিরাতের ব্যাটিংয়ের মূল ভিত্তি। এরপর কোনো ব্যাটারই সেভাবে প্রতিরোধ গড়তে পারেননি। অলআউট হলেও ব্যবধান অবশ্য কাছাকাছিই নিয়ে এসেছিল তারা। কিন্তু কোনো ব্যাটার ফিনিশ করতে পারেননি কাজ। শেষদিকে ১৭ বলে ২৫ রান করে চেষ্টা করেছিলেন কেবল আয়ান আফজাল খান।

বাংলাদেশের পক্ষে ৩ ওভার হাত ঘুরিয়ে ১৭ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ৩ ওভার ৪ বল হাত ঘুরিয়ে তিন উইকেট পেয়েছেন শরিফুল ইসলামও। এছাড়া ৪ ওভারে ৩১ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন মোস্তাফিজুর রহমান।

বাংলাদেশ জার্নাল/জিকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত